April 23, 2019

তীক্ষন দৃষ্টির কিছু প্রাণী

--- ৭ মে, ২০১৩

রেশমা ইয়াসমিন ॥ মানুষ হোক বা পশু-পাখিথদৃষ্টিশক্তির প্রয়োজনীয়তা সবার জন্যই সমান। তবে সবার দেখার ক্ষমতা এক রকম নয়। পৃথিবীতে এমন কিছু প্রাণী রয়েছে, যাদের দৃষ্টিশক্তি আমাদের চেয়ে অনেক বেশি। এ ধরনের প্রাণীর উদাহরণ দিতে গেলে প্রথমেই চলে আসে ঈগল বা বাজপাখির কথা। এসব পাখির দৃষ্টিশক্তি মানুষের চেয়ে তিন-চার গুণ বেশি হয়। কয়েক মাইল দূর থেকে এরা শিকার দেখতে পায়। ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ১০০ মাইল বেগে এরা শিকার ধরতে নিচে নামা শুরু করে। আরো আশ্চর্যের বিষয় হলো, এই গতিতে চলেও শিকারের দিকে ঠিকই নজর রাখে বাজ পাখি। গভীর রাতেও দিনের আলোর মতোই স্পষ্ট সবকিছু দেখতে পায় এমন একটি পাখি পেঁচা। অন্ধকারে পেঁচার দেখার ক্ষমতা এতটাই বেশি যে বলা হয়, একটি ফুটবল মাঠে একটি মাত্র মোমবাতি জ্বললেও পেঁচা সেই আলোতেই ইঁদুর খুঁজে বের করতে পারবে। পেঁচা তার মাথা ২৭০ ডিগ্রি পর্যন্ত ঘোরাতে পারলেও চোখ নাড়াতে পারে না। পানিতে যেসব প্রাণী বাস করে, তার মধ্যে সবচেয়ে তীক্ষè দৃষ্টি হলো হাঙরের। মানুষের চেয়ে প্রায় ১০ গুণ বেশি ক্ষীণ আলো দেখতে সক্ষম এরা। স্তন্যপায়ী প্রাণীদের মধ্যে প্রখর দৃষ্টিশক্তি রয়েছে বিড়ালের। এ ছাড়া ঘোড়া বা জেব্রার মতো প্রাণীরা এক সময়ে প্রায় সব দিকেই নজর রাখতে পারে। নড়াচড়া বোঝার জন্য সবচেয়ে ভালো হলো পোকামাকড়ের চোখ। দৃষ্টিশক্তি মানুষের চেয়ে দুর্বল হলেও নড়াচড়া বোঝার জন্য এদের চোখই বেশি কার্যকরী।

ফেইসবুকে আমরা

পুরনো সংখ্যা

এপ্রিল ২০১৯
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« মার্চ    
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০