September 26, 2018

দেশ গভীর সঙ্কটে নিপতিত জাতি চরম আতঙ্কিত– পীর সাহেব চরমোনাই

--- ৭ মে, ২০১৩

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর আমীর মুফতী সৈয়দ মোহাম্মদ রেজাউল করীম পীর সাহেব চরমোনাই বলেছেন, দেশ গভীর সঙ্কটে নিপতিত। আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি বলতে কিছু নেই। সরকারের অদূরদর্শিতা ও একগুয়েমীর কারণেই গত ৫ মে ইতিহাসের সবচেয়ে জঘন্য ঘটনার অবতারণা হয়। আল্লামা আহমদ শফী দা.বা.-এর ৫ মে’র শান্তিপূর্ণ সমাবেশে হত্যাকান্ড, দুস্কৃতি কর্তৃক দোকানপাঠে অগ্নিসংযোগ, জ্বালাও-পোড়াও ও ভাঙচুরের সাথে জড়িতদের বিচার বিভাগীয় তদন্তের মাধ্যমে প্রকৃত দোষীদের শাস্তি দিতে ব্যর্থ হলে সরকারের জন্য শুভ হবে না। তিনি বলেন, পুলিশ, র‌্যাব ও বিজিবি যৌথভাবে অভিযান চালিয়ে গভীররাতে লোকচক্ষুর আড়ালে নিরীহ আলেম-ওলামা ও সাধারণ মানুষকে গুলি করে হত্যা ও শত শত মানুষকে আহত করার দায়ভার সরকার কিছুতেই এড়াতে পারবে না। এই হত্যাকান্ডে নিহত ও আহত সংখ্যা কত তা জাতিকে জানাতে হবে, দেশময় সাধারণ মানুষের মাঝে উদ্বেগ ও উৎকন্ঠা দুর করতে হবে এবং ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারকে যথাযথ ক্ষতিপুরণ দিতে হবে। পীর সাহেব চরমোনাই জনগণকে ধৈর্যধারণ সেই সাথে সরকারকেও বাস্তবমুখী উদ্যোগ নেয়ার জন্য আহ্বান জানান। সরকার বাস্তবমুখি উদ্যোগ নিতে ব্যর্থ হলে সরকারের জন্য করুণ পরিণতি ডেকে আনবে বলেও তিনি মন্তব্য করেন।

পীর সাহেব চরমোনাই বিবৃতিতে আরো বলেন, ৫ মে’র অবরোধ চলাকালে দৃস্কৃতিকারী কর্তৃক ভাংচুর, লুট-তরাজ ও অগ্নিসংযোগের ঘটনা কোনক্রমেই গ্রহণযোগ্য নয়। ঘটনার সাথে জড়িতদের খুঁজে বের করার দায়িত্ব সরকারের। কিন্তু তা না করে ঢালাওভাবে নিরীহ মুসল্লি, দাড়ি-টুপিওয়ালা ও কওমী মাদরাসাগুলোকে দায়ী করা কোনক্রমেই মেনে নেয়া যায় না। সেই সাথে সরকার দলীয় ক্যাডারদের দ্বারা নিরীহ দাঁড়ি-টুপিওয়ালাদের হয়রানী ও নির্যাতন করার ঘটনা ঘটছে বলে জানা যাচ্ছে। যা অত্যন্ত নিন্দনীয়। তিনি আরো বলেন, আলেম-ওলামাদের ওপর জুলুম-নির্যাতনের ফল শুভ হয় না। তিনি নিরীহ আলেম-ওলামাদের ওপর নির্যাতন ও মামলা থেকে থেকে বিরত থাকার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানান।

দোয়া মাহফিল ঃ আজ বাদ আছর পুরানা পল্টনস্থ কার্যালয়ে ৫ মে’র সমাবেশে সরকারের যৌথ বাহিনীর হামলায় অসংখ্য মানুষ হত্যা ও আহতদের আশু সুস্থতা কামনা করে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর উদ্যোগে বিশেষ দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। এতে উপস্থিত ছিলেন প্রেসিডিয়াম সদস্য মাওলানা সৈয়দ মোসাদ্দেক বিল্লাহ আল মাদানী, মহাসচিব অধ্যক্ষ মাওলানা ইউনুছ আহমাদ, মুহতারাম আমীরের রাজনৈতিক উপদেষ্টা অধ্যাপক আশরাফ আলী আকন, সহকারী মহাসচিব মাওলানা গাজী আতাউর রহমান, ঢাকা মহানগর সভাপতি অধ্যাপক মাওলানা এটিএম হেমায়েত উদ্দিন, মাওলানা ইমতিয়াজ আলম, মাওলানা আহমদ আবদুল কাইয়ূম, মাওলানা লোকমান হোসাইন জাফরী, প্রিন্সিপাল মাওলানা আতাউর রহমান আরেফী, ছাত্রনেতা আরিফুল ইসলাম প্রমুখ। মুনাজাত পরিচালনা করেন মাওলানা ইউনুছ আহমাদ।

ফেইসবুকে আমরা

পুরনো সংখ্যা

সেপ্টেম্বর ২০১৮
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« আগষ্ট    
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০