September 15, 2019

পিতা- পুত্রকে

--- ১৪ জানুয়ারি, ২০১৪

ডাঃ মোঃ আল-আমিন পুত্র আমার -যারা ধ্যাণ করেন তারা নাকি মনকে শান্ত রাখার জন্য একটা নিয়ম মেনে চলেন। তারা কল্পনা করেন যে একদিকে সব আছে, অন্যদিকে কিছু নেই, তারা চেষ্টা করেন ঐ রাস্তার ঠিক মাঝখানে থাকার, কারণ সেই মধ্যপন্থাতেই নাকি সব সুখ আর প্রশান্তি। কিন্তু তেমন করে ভাবে না তোমার পিতা।

আমার মনে হয়, জীবন মানেই অনিশ্চয়তা, যেখানে মধ্যপন্থা বলে কিছু নেই। মধ্যপন্থা মানেই ভীরুতা, পলায়নপরতা, নিজেকে গুটিয়ে রাখা। কিন্তু জীবন আদৌ এমন নয়, জীবন কঠিন, কিন্তু এর সৌন্দর্য্য অতুলনীয়, দুর্গম, কঠিন পথকে এড়িয়ে যাবার কোনো মানে হয় না। সুন্দরকে চাইলে অসুন্দরের মধ্য দিয়েই এগোতে হবে।

তবে এটাও সত্যি যে মধ্যপন্থার জীবনই তুলনামূলকভাবে নিরূপদ্রব। কিন্তু যে প্রকৃত সুন্দরের খোঁজ করে তাকে কি অর্ধেক দিয়ে তুষ্ট করা যায়?

জীবনটা তোমার

সেটাকে কিভাবে এগিয়ে নেবে সেই সিদ্ধান্ত তোমার।

তবে, হ্যা, যদি কখনও অসুন্দরকে জয় করে সুন্দরের দিকে এগোতে চাও, তখন যদি তোমার পাশে কেউ না থাকে তাহলে জেনে নিয়ো তোমার পিতা তোমার হাত ধরে থাকবে শক্ত করে।
হাতটা হয়তো দুর্বল, কিন্তু ভালোবাসায় উষ্ণ।
কী করবে তুমি?

সুন্দরের খোঁজে ঝাপ দিবে অসুন্দর আর বাধার পাহাড়ময় রাজ্যে?
নাকি মোটামুটি একটা জীবনের পথেই হাটবে?
বেছে নেবার দায়িত্ব তোমার।

কথা শেষ।

তোমাকে একটা কথাই বলবার বাকি আছে আমার; কথাটা হলো- দুনিয়ার সব পিতা আর সন্তানের ক্ষেত্রেও বিষয়টা অনেকটা একরকম।


পিতা আর সন্তানের হৃদয় আলাদা হলেও, এক অদৃশ্য জাদুবলে সেই হৃদয়জোড়া আসলে এক ও অভিন্ন।
সন্তান হয় পিতার কলিজার টুকরো।

ফেইসবুকে আমরা