বরগুনার তালতলী উপজেলার রাজাকার অবসরপ্রাপ্ত স্কুল শিক্ষক সুন্দর আলীর অপকর্ম

তালতলী সংবাদদাতা ॥ বরগুনার তালতলী উপজেলার রাজাকার অবসরপ্রাপ্ত স্কুল শিক্ষক সুন্দর আলীর অপকর্ম করে যাচ্ছে। স্বাধীনতা বিরোধী চক্রের সাথে হাত মিলিয়ে এথনও মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের শক্তিকে নানান ভাবে হেয় করতে নানান ষড়যন্ত্র চালিয়ে যাচ্ছে। অনুসন্ধানে স্বাধীনতা বিরোধী অব: স্কুল শিক্ষক সুন্দর আলীর নানান অপকর্মের মধ্যে ২০০১ সালে জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যে ৫টি আসনে নির্বাচন করেন তার মধ্যে বরগুনা জেলার আমতলী-তালতলী আসনটিও অন্তর্ভূক্ত ছিলো। তখন প্রধানমন্ত্রী অত্র নির্বাচনী এলাকায় প্রচার-প্রচারনার উদ্দেশ্যে তালতলী উপজেলায় অবস্থানকালে যোহরের নামাজের সময় হয়ে যাওয়ায় সুন্দরআলীর কাছে জায়নামাজ চাইতে গেলে সে দিতে অস্বীকৃতি জানায়। তখন স্থানীয় নেতারা তার বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশ করে।
স্থানীয়রা জানান সুন্দর আলী মাস্টার তালতলী উপজেলার একজন চিহ্নিত রাজাকার এবং জামাতের অর্থ যোগানদাতা। সে সংখ্যালঘু রাখাইনদের জমিজমা জাল-জালিয়াতির মাধ্যমে গায়ের জোরে জবর দখল করে রেখেছে। সুদখোর সুন্দর আলীর বিরুদ্ধে নানান তথ্য এলাকাবাসীর মুখে মুখে। এলাকাবাসীর দাবী সুন্দরআলীর মতো ন্যাঙ্কার জনক লোককে আইনের মাধ্যমে বিচারের মুখোমুখি করার।