বরিশালে খেয়াঘাট দখল নিয়ে উত্তেজনা

বরিশাল টু-ডে ॥ পহেলা বৈশাখকে সামনে রেখে বরিশালের মুলাদী উপজেলার মৃধারহাট থেকে আবুপুর পর্যন্ত আড়িয়াল খাঁ নদীর ব্যস্ততম এলাকার খেয়াঘাট দখলকে কেন্দ্র করে স্থানীয় দু’গ্র“পের মধ্যে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। এনিয়ে যেকোন সময় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশংকা করছেন এলাকাবাসী। জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে উক্ত খেয়াঘাট লিজ দেয়ার জন্য দাবি জানিয়েছেন সাধারন জনগন।
স্থানীয়দের অভিযোগে জানা গেছে, নদীর ব্যস্ততম এলাকা মুলাদীর মৃধারহাট থেকে আবুপুর পর্যন্ত নদী পাড়াপাড়ের জন্য বারো মাসই খেয়া নৌকার মাধ্যমে স্থানীয়রা যাতায়াত করে আসছেন। প্রতিবছর পহেলা বৈশাখের সময় উভয়পাড়ের বাসিন্দারা পাশ্ববর্তী গৌরনদী বন্দরের ঐতিহ্যবাহী তিন দিনব্যাপী বৈশাখী মেলায় যাতায়াত করায় অন্যান্যদিনের চেয়ে যাত্রীর চাপ অনেকাংশে বেড়ে যায়। ফলে প্রতিবছরই স্থানীয় প্রভাবশালীরা কয়েকদিনের জন্য ঘাট দখল করে যাত্রীদের জিম্মি করে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করে থাকেন। এ নিয়ে যাত্রীদের সাথে বাকবিতন্ডা ও হাতাহাতির ঘটনাও ঘটে। আসছে পহেলা বৈশাখকে সামনে রেখে প্রভাবশালী নুরুল ইসলাম ওরফে নুরু খান ও তার লোকজনে ইতোমধ্যে ঘাট দখলের জন্য মরিয়া হয়ে ওঠে। স্থানীয় সমাজ সেবক রুস্তুম হাওলাদার গতকাল বুধবার এলাকাবাসীর পক্ষে ঘাট দখলের বিপক্ষে অবস্থান নেয়ায় এলাকায় চরম উত্তেজনা ছড়িয়ে পরে। এনিয়ে যেকোন সময় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশংকা রয়েছে।
স্থানীয়রা জানান, নদী পারাপার হতে অন্যান্য দিনে জনপ্রতি ১০ টাকা করে নেয়া হলেও পহেলা বৈশাখ উপলক্ষ্যে প্রভাবশালীরা ঘাট দখলের পর যাত্রীদের জিম্মি করে জনপ্রতি ৩০ টাকা করে নেয়া হয়। ভুক্তভোগী এলাকাবাসী জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে ওই খেয়াঘাটটি টেন্ডারের মাধ্যমে ইজারা দেয়ার জন্য জোর দাবি জানিয়েছেন। এতে করে সরকারের রাজস্ব আয় বৃদ্ধিসহ স্থানীয়রা রক্ষা পাবে প্রভাবশালীদের জিম্মিদশা থেকে।