November 14, 2019

বরিশালে ছোট লঞ্চ চলাচলে নিষেধাজ্ঞা অব্যাহত

--- ২৩ জুন, ২০১৫

বরিশালে অভ্যন্তরীণ রুটে ৬৫ ফুটের নীচে লঞ্চ চলাচল দ্বিতীয়দিনের মতো বন্ধ রয়েছে। নদী বন্দরে দুই নম্বর সতর্কতা সংকেত থাকায় বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ) সোমবার সকালে ছোট লঞ্চ চলাচলে নিষেধাজ্ঞা জারি করে।
নিষেধাজ্ঞার কারণে বাউফল, হিজলা ও বাহেরচর রুটের এম এল লিমা, এম এল শাহিন এবং এম এল মাহিন মার্শি মাইশা নামের তিনটি লঞ্চ চলাচল বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। তবে অভ্যন্তরীণ রুটে অন্যান্য লঞ্চগুলো সহ বরিশাল-ঢাকা রুটের যাত্রীবাহি নৌজাহাজ চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে।
বিআইডব্লিউটিএ’র নৌ-নিরাপত্তা ও ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা বিভাগের উপ-পরিচালক মো. আবুল বাশার মজুমদার জানান, আবহাওয়ার উন্নতি না হওয়া পর্যন্ত এই নিষেধাজ্ঞা বলবৎ থাকবে।
মঙ্গলবার সকালে তিনি জানান, বৈরি আবহাওয়ায় সম্ভাব্য দুর্ঘটনা এড়াতে শুধু ৬৫ ফুটের চেয়ে ছোট লঞ্চ চলাচলের ওপর এ নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে।
এদিকে বরিশাল, ভোলা, পটুয়াখালী সহ দেশের বিভিন্ন জেলায় ৬০ থেকে ৮০ কিলোমিটার বেগে ঝড়ের আশঙ্কার কথা জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদফতর। সোমবার (২২ জুন) রাতে বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদফতরের পক্ষ থেকে এ সংক্রান্ত সতর্কবার্তা জারি করা হয়। সেই সঙ্গে দেশের নদীবন্দরগুলোকে দুই (২) নম্বর সতর্কতা সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে।
আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট মৌসুমী নিম্নচাপটি ভারতের উড়িষ্যা উপকূল অতিক্রম করে উড়িষ্যা ও এর আশপাশের এলাকায় লঘুচাপ হিসেবে পরিণত হয়েছে। তবে এর জন্য উত্তর বঙ্গোপসাগর এলাকায় মৌসুমী বায়ু প্রবল থাকায় এ সতর্কতা জারি। বরিশাল, ভোলা পটুয়াখালী, যশোর, সাতক্ষীরা, খুলনা, নোয়াখালী, কুমিল্লা, চট্টগ্রাম ও কক্সবাজার অঞ্চলসমূহের ওপর দিয়ে ৬০ থেকে ৮০ কিলোমিটার বেগে ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি/বজ্রবৃষ্টি হতে পারে।

ফেইসবুকে আমরা