ভোলার মেঘনা ও তেঁতুলিয়া রক্ষাবাধে বজ্রপাত নিরোধক তালগাছ রোপণ

মনিরুজ্জামান,বোরহানউদ্দিন থেকে ঃ
ভোলা জেলার বোরহানউ্িদ্দন উপজেলায় মেঘনা ও তেঁতুলিয়া রক্ষাবাধে বজ্রপাত নিরোধক তথা সবুজ বেস্টনি নির্মানের লক্ষে তালগাছ রোপণ করা হয়েছে। বোরহানউদ্দিন উপজেলা প্রশাসন এর উদ্যোগে শনিবার গংগাপুর , বৃহস্পতিবার সাচড়া ইউনিয়নের তেতুলিয়া নদীর বেরিবাধ এবং শুক্রবার পক্ষিয়া ইউনিয়নের মেঘনা নদীর বেরিবাধের উপর সর্বমোট প্রায় চৌদ্দ হাজার তালগাছ রোপণ করেন। শুক্রবার সকালে মেঘনা নদীর বেরিবাধের প্রায় ৭কিঃমিঃ এলাকায় সাড়ে দশ হাজার এবংবৃহস্পতি ও শনিবার তেতুলিয়া নদীর রক্ষা বাধে দুই হাজার ৪৬০টি তালগাছের চারা রোপণ করার মধ্যে দিয়ে ওই কর্মসূচীর উদ্ধোধন করেন ইউএনও মোঃ আঃ কুদদূস। মন্ত্রী পরিষদ বিভাগের নির্দেশনা বাস্তবায়নের লক্ষে বোরহানউদ্দিন উপজেলা প্রশাসন এ কর্মসূচী গ্রহণ করে।
বোরহানউদ্দিন উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তা মোঃ আঃ কুদদূস জানান,প্রমত্তা মেঘনা ও তেতুলিয়া নদীর বেরিবাধে উপকূলীয় বেস্টনি নির্মাণের লক্ষে এ কর্মসূচী গ্রহণ করা হয়েছে।এই কর্মসূচীর সফল বাস্তবায়নের জন্য শুক্রবার পক্ষিয়া ইউনিয়নের ৫ও ৬ নং ওয়ার্ডের মেঘনা তীরবর্তী বেরিবাধের ৭ কিঃ মিঃ এলাকায় সাড়ে দশ হাজার তালের চারা রোপণ করা হয়েছে। শনি ও বৃহস্পতিবার গংগাপুর সাচড়া ইউনিয়নের তেতুলিয়ার বেরিবাধে দুই হাজার ৪৬০ টি তালগাছের চারা রোপণ করা হয়।এই কর্মসূচীর সফল বাস্তবায়নের ফলে পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষা,বজ্রপাত নিরোধ,ঘূর্নিঝড়,সাইক্লোন,টর্নেডো,নদী ভাঙ্গন ও সামুদ্রিক জ্বলোচ্ছাসসহ সব প্রাকৃতিক দুর্যোগ থেকে উপজেলাবাসী রক্ষা পাবে।তিনি আর ও জানান,চলতি মাসের মধ্যেই মেঘনা ও তেতুলিয়া নদীর রক্ষাবাধের উপর নূন্যতম ২০ হাজার তালগাছের চারা রোপণ করা হবে।উল্লেখ্য,ইউএনও ১৪ আগষ্ঠ জাতীর জনকের স্মরণে বোরহানউ্িদ্দন উপজেলায় ১মিনিটে ১৭ প্রজাতির ১লাখ চারা রোপন করেণ ।উভয় অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে ছিলেনসিনিয়র উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা নাজমুস সালেহীন সহকারী পল্লী উন্নয়ন কর্মকর্তা আমিনুল ইসলাম, পক্ষিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নাগর হাওলাদার,সচিব আলী আশ্রাফ, সাচড়া ইউপির সচিব মাইনুদ্দিন ও জনপ্রতিনিধি কালাম বর্দ্দার প্রমুখ।