র‌্যাগিংয়ে প্রতিবাদ করায় বরিশাল আইএইচটি শিক্ষার্থীকে মারধর \ আত্মহত্যার চেষ্টা

র‌্যাগিংয়ের বিরুদ্ধে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পোস্ট দিয়ে র‌্যাগিং হোতাদের দ্বারা মৌখিক ও শারীরিক লাঞ্ছনার শিকার হয়ে আত্মহননের চেষ্টা চালিয়েছে বরিশাল ইনস্টিটিউট অব হেলথ টেকনোলজির (আইএইচটি) ফিজিওথেরাপি বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী আমিনা। মূমুর্ষ অবস্থায় হোস্টেল থেকে ঐ ছাত্রীকে উদ্ধার করে শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। শনিবার শেবাচিম হাসপাতালের মহিলা মেডিসিন ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন আমিনা জানান, ডিপ্লোমা মেডিকেল স্টুডেন্ট নেটওয়ার্ক নামে একটি মেসেঞ্জার গ্রæপে শুক্রবার সকালে র‌্যাগিংয়ের বিরুদ্ধে পোস্ট দেয় সে। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে আইএইচটি ছাত্রিনিবাসের র‌্যাগিং হোতা তৃতীয় বর্ষের মৌ, ফাতেমা, লামমিম ও জুই সংঘবদ্ধ হয়ে আমিনাকে শারীরিক ভাবে নির্যাতন করে। এরপর অশ্লীল ভাষায় তাকে গালি-গালাজ করলে আমিনা অপমানে ওষুধ খেয়ে আত্মহননের চেষ্টা চালায়।
এব্যাপারে আইএইচটির ডেপুটি হোস্টেল সুপার সুবোধ রঞ্জন মন্ডল জানান, মারধরের বিষয়টি তারা জানেন না তবে আমিনাকে অপমান করা হয়েছে এটা শুনেছেন। তিনি আরো জানান, আমিনা অতিরিক্ত ওষুধ খেয়ে অসুস্থ্য হয়ে পরলে আমরা মেডিকেলে নিয়ে ওয়াশ করিয়ে চিকিৎসাধীন ওয়ার্ডে রেখে আসি। আইএইচটির অধ্যক্ষ সাইফুল ইসলাম বলেন, এঘটনায় তিন সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি হয়েছে এবং পাঁচ দিনের মধ্যে প্রতিবেদন দেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। তদন্ত কমিটিতে রয়েছে প্রতিষ্ঠানটির উপাধ্যক্ষ শুভংকর বাড়ৈ, হোস্টেল সুপার, সহকারি হোস্টেল সুপার নাজমা।