November 14, 2018

সরকার দেশের উন্নয়নের জন্য নিরলসভাবে কাজ করছে …স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী

--- ৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৮

স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেন এমপি বলেছেন, বর্তমান সরকার দেশের উন্নয়নের জন্য নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। এক সময় সারা বাংলাদেশের বাজেট ছিল সাত হাজার কোটি টাকা। বর্তমানে শুধু পিরোজপুর জেলায় স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের অধীনে দুই হাজার কোটি টাকার কাজ চলমান। দেশ যে এগিয়ে যাচ্ছে এটাই তার প্রমাণ।
তিনি শুক্রবার সকালে পিরোজপুর জেলার ভান্ডারিয়া উপজেলা পরিষদের নবনির্মিত সম্প্রসারিত প্রশাসনিক ভবনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। খন্দকার মোশাররফ হোসেন অনুষ্ঠানে আরও বলেন, বৃহত্তর ফরিদপুরের একজন বাসিন্দা হিসাবে বরিশাল অঞ্চলের ভান্ডারিয়ায় আজ আমি আসতে পেরে নিজেকে ধন্য মনে করছি। এই দুই অঞ্চলের মানুষের মধ্যে আত্মীয়তার সম্পর্ক অনেক পুরোনো, ব্যাপক ও নিবিড়। এখানে আমি অতিথি হিসাবে আসিনি, এসেছি একজন স্বজন হিসাবে। আপনারা আমাকে আপন ভাববেন, পর ভাববেন না। ভান্ডারিয়ায় এসে আজ আমি অভিভূত। বঙ্গবন্ধুর অত্যন্ত আপনজন মানিক মিয়ার ছেলে আনোয়ার হোসেন মঞ্জু আমাকে ভান্ডারিয়ায় আসার আমন্ত্রণ জানানোয় আমি অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছিলাম এখানে আসার জন্য। আবহাওয়া বৈরী হওয়ায় আমি সংশয়ের মধ্যে ছিলাম সত্যি সত্যি আজ ভান্ডারিয়ায় আসতে পারবো কিনা। আল্লাহর অসীম রহমতে এখানে আসতে পেরে নিজেকে অত্যন্ত ভাগ্যবান মনে করছি। ভান্ডারিয়া, কাউখালী ও ইন্দুরকানী সংসদীয় আসনে বারবার নির্বাচিত সংসদ সদস্য আনোয়ার হোসেন মঞ্জু’র মত একজন নেতাকে ৩৪ বছর ধরে আপনারা পেয়েছেন এটা এলাকাবাসীর পরম সৌভাগ্য। তিনি সরকারের মন্ত্রী সভার একজন সম্মানিত ও অভিজ্ঞ সদস্য এবং সারা বাংলাদেশের নেতা। এলাকার মানুষ তাকে পেয়ে যে কতটা সৌভাগ্যবান তা আজকের এই সমাবেশ দেখে আমি অনুধাবন করতে পারছি। আমাকে দেশের বিভিন্ন জেলায় যেতে হয়, কিন্তু কোথাও এমন চমৎকার ও সমৃদ্ধ সমাবেশ আগে কখনও দেখিনি। বয়ঃজ্যেষ্ঠ মুরব্বী, মুক্তিযোদ্ধসহ নানা বয়সী নারী পুরুষের এ রকম উপচে পড়া আন্তরিক উপস্থিতি আমাকে অবাক ও মুগ্ধ করেছে। এ সমাবেশ প্রমাণ করে তাদের নেতা ও প্রতিনিধি আনোয়ার হোসেন মঞ্জুর প্রতি এলাকার মানুষের শ্রদ্ধা ও ভালবাসা কতটা গভীর এবং বন্ধন কত সুদৃঢ়। বিকালে ঢাকায় গণভবনে একটি গুরুত্বপূর্ণ কর্মসূচি থাকায় ভান্ডারিয়ায় আমার আজকের সফর সংক্ষিপ্ত করতে হয়েছে বলে আমি দুঃখিত। আগামীতে বেশী সময় হাতে নিয়ে এসে এখানে আমি আপনাদের সাথে আবার মিলিত হবো। খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, সরকারের গত নয় বছরে পিরোজপুর জেলায় স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের অধীনে প্রায় দুই হাজার কোটি টাকার উন্নয়ন কাজ হয়েছে। এর মধ্যে জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের ৬৭ কোটি টাকার কাজ হয়েছে, ৮৭ কোটি টাকার প্রকল্প বাস্তবায়নের অপেক্ষায়। চারটি পৌরসভায় ৫৫ কোটি টাকা, সাতটি উপজেলায় ৪৪ কোটি টাকা, ৫১টি ইউনিয়ন পরিষদে ৫৩ কোটি টাকার বিভিন্ন প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হয়েছে। জেলায় এ সময়কালে ৩৩টি ইউনিয়ন পরিষদ ভবন নির্মিত হয়েছে। আনোয়ার হোসেন মঞ্জু’র মত একজন নেতার পক্ষেই এ উন্নয়নের নেতৃত্ব দেয়া সম্ভব হয়েছে বলে স্থানীয় সরকার মন্ত্রী মন্তব্য করেন।
জাতীয় পার্টি-জেপি’র চেয়ারম্যান ও পানি সম্পদ মন্ত্রী আনোয়ার হোসেন মঞ্জু অনুষ্ঠানের সম্মানিত অতিথির বক্তব্যে বলেন, আজকের এ অনুুষ্ঠান প্রমাণ করে আমাদের ঈমান যদি অটুট ও জনগণের যদি দোয়া থাকে এবং মানুষ যদি ঐক্যবদ্ধ হয় সেখানে আল্লাহর রহমত নেমে আসে। আজকের প্রধান অতিথি খন্দকার মোশাররফ হোসেন সরকারের মন্ত্রী সভার সম্মানিত সদস্য এবং দেশের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি। দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার আশঙ্কা সত্ত্বেও আমাদের আমন্ত্রণে তিনি ভান্ডারিয়ায় এসেছেন এই জন্য তাঁকে হৃদয়ের অন্তঃস্থল থেকে ধন্যবাদ জানাই। তিনি তাঁর মন্ত্রণালয়ের অধীনে ভান্ডারিয়ায় বিশুদ্ধ পানি সরবরাহ প্রকল্পের অনুমোদন দিয়েছেন এবং আজ উদ্বোধন করলেন। পাশাপাশি উপজেলা সম্প্রসারিত প্রশাসনিক ভবন ও খন্দকার মোশাররফ হোসেন মিলনায়তনের উদ্বোধন করে আমাদেরকে কৃতজ্ঞ করেছেন। ৩৪ বছর ধরে আমি বলে আসছি যতদিন মানুষের মাঝে ঐক্য থাকবে, আমি যদি নাও থাকি এলাকার উন্নয়ন ও প্রয়োজন এভাবেই পূরণ হবে। ভান্ডারিয়া উপজেলা পরিষদ চত্বরে এই উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ভান্ডারিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার শাহীন আক্তার সুমী’র সভাপতিত্বে আরও বক্তব্য রাখেন পিরোজপুর জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মহিউদ্দিন মহারাজ, ভান্ডারিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান আতিকুল ইসলাম তালুকদার উজ্জল, উপজেলা জাতীয় পাট্র্-িজেপি’র আহ্বায়ক ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মনিরুল হক মনি, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ফাইজুর রশীদ খসরু, উপজেলা জেপি’র সদস্য সচিব ও ধাওয়া ইউপি চেয়ারম্যান সিদ্দিকুর রহমান টুলু এবং টুঙ্গীপাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক হাফিজুর রশীদ তারিক।
অনুষ্ঠানের মঞ্চে এ সময় উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের প্রধান প্রকৌশলী (ভারপ্রাপ্ত) খলিলুর রহমান, জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের প্রধান প্রকৌশলী মো. মনিরুজ্জামান, পিরোজপুরের জেলা প্রশাসক (ভারপ্রাপ্ত) ও সরকারের উপ-সচিব মো. মোস্তাফিজুর রহমান, পিরোজপুরের পুলিশ সুপার মো. সালাম কবির, ভান্ডারিয়ার উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মিরাজুল ইসলাম, উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আসমা আক্তার, স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানদের মধ্যে নদমূলা শিয়ালকাঠির সফিকুল কবির তালুকদার বাবুল, গৌরীপুরের মজিবুর রহমান চৌধুরী, ভিটাবাড়িয়ার খান এনামুল কবির পান্না, ইকড়ির মো. হুমায়ুন কবির প্রমুখ।
শুক্রবার দুপুরে স্থানীয় সরকার মন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেন ও পানি সম্পদ মন্ত্রী আনোয়ার হোসেন মঞ্জু আনুষ্ঠানিকভাবে ভান্ডারিয়া উপজেলার নবনির্মিত সম্প্রসারিত প্রশাসনিক ভবন ও হলরুমের উদ্বোধন করেন। পাঁচ কোটি টাকা ব্যয়ে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর এই প্রকল্প বাস্তবায়ন করেছে। ছয় তলা ফাউন্ডেশন বিশিষ্ট চার তলা কংক্রিট ফ্রেম স্ট্রাকচার মূল ভবনের ৩২টি কক্ষ রয়েছে। হলরুমসহ ভবনের সর্বমোট আয়তন ২১ হাজার বর্গফুট। ২০১৭ সালের ৭ এপ্রিল প্রকল্পের কাজ শুরু হয়ে ২০১৮ সালের ৪ সেপ্টেম্বর সম্পন্ন হয়।
এছাড়া এ সময় স্থানীয় সরকার মন্ত্রী জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের ভান্ডারিয়া উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে নিরাপদ পানি সরবরাহ প্রকল্পের উদ্বোধন করেন। এ সব উদ্বোধন শেষে দোয়া ও মোনাজাত করা হয়।
স্থানীয় সরকার মন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেনের ভান্ডারিয়ায় আগমন উপলক্ষে সারা শহরকে বর্ণাঢ্য সাজে সাজানো হয়। হাসপাতাল মাঠের হেলিপ্যাড থেকে উপজেলা পরিষদ চত্বরের অনুষ্ঠান স্থল পর্যন্ত রাস্তার দুই পাশে শত শত মানুষ দাড়িয়ে অতিথিকে অভ্যর্থনা জানান। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের উপচে পড়া মানুষের পাশাপাশি বাইরেও শত শত মানুষ রাস্তায় ও বিভিন্ন স্থানে দাড়িয়ে অতিথিদের বক্তব্য শোনেন।

ফেইসবুকে আমরা

পুরনো সংখ্যা

নভেম্বর ২০১৮
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« অক্টোবর    
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০