December 8, 2019

সেনাবাহিনী থাকবে ১৫ দিন

--- ২০ ডিসেম্বর, ২০১৩

নির্বাচন সামনে রেখে শুক্রবার আইন-শৃঙ্খলা বিষয়ক বৈঠক শেষে প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী রকিবউদ্দীন আহমদ সাংবাদিকদের বলেন, “২৬ ডিসেম্বর থেকে ৯ জানুয়ারি পর্যন্ত সেনা থাকবে। পরিস্থিতি ভালো থাকলে কোনো কোনো স্থানে কম থাকবে, কোথাও অসুবিধা হলে সেনা সদস্য বাড়ানো হবে।”

সশস্ত্রবাহিনীর সদস্য ছাড়াও বিজিবি, পুলিশ, র‌্যাব, কোস্টগার্ড, ব্যাটালিয়ন আনসার, আনসার, ভিডিপি, কোস্টগার্ড সদস্যরাও ভোটের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে নিয়োজিত থাকবেন।
বিকেল ৩টায় শুরু হওয়া এ বৈঠকে চার নির্বাচন কমিশনার, নির্বাচন কমিশনের সচিব, রিটার্নিং কর্মকর্তা, সশস্ত্র বাহিনী, পুলিশ, র‌্যাব এবং বিজিবির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারাও অংশ নেন।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে সিইসি জানান, ঝুঁকিপূর্ণ কেন্দ্রের সংখ্যা কমিশন এখনো চূড়ান্ত করেনি। এ জন্য আরো কয়েকদিন সময় লাগবে।

নির্বিঘ্নে ভোট অনুষ্ঠানের জন্য পরিস্থিতির আরো উন্নতি ঘটাতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ দেন সিইসি।

প্রসঙ্গত ঃ বৃহস্পতিবার বিকালে সড়ক পথে বরিশালে এসে পৌঁছায় সেনা সদস্যদের একটি দল। তাঁরা প্রাথমিকভাবে বাবুগঞ্জের রহমতপুর কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউটের অভ্যন্তরের কিন্ডারগার্টেন ভবনে উঠেছেন। সেনা সদস্যদের আগমন নিশ্চিত করে বাবুগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোঃ বাকাহীদ হোসেন জানান, একজন মেজর ও ক্যাপ্টেন সহ প্রায় ৯০ জন সদস্যের মতো একটি দল বরিশালে এসেছেন। শীতকালীন মহড়া উপলক্ষে তাঁরা বরিশালে এসেছেন বলে জানিয়েছেন তিনি।

এদিকে সরকারের একটি গোয়েন্দা সংস্থার কর্মকর্তারা নিশ্চিত করেছেন, নির্বাচনকালীন সময় সারা দেশে সেনা মোতায়েন হবে। সেই প্রস্তুতির অংশ হিসেবে সেনাবাহিনীর একটি অগ্রবর্তী দল (এ্যাডভান্স টিম) এখন বরিশাল শহরে অবস্থান করছেন।

ফেইসবুকে আমরা