July 22, 2017

জিলা স্কুলের ছাত্রকে কুপিয়ে জখম

--- ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৩

barisal-zila-school

কাজী রনী ॥ বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় ও জিলা স্কুলের শিক্ষার্থীদের মধ্যে বৃহস্পতিবার নতুন করে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। গতকাল জিলা স্কুলের সপ্তম শ্রেণীর শিক্ষার্থী সাফায়াতকে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস সংলগ্ন এলাকায় কুপিয়ে জখম করা হয়। তাৎক্ষণিক জিলা স্কুলের শিক্ষার্থীরা এ ঘটনার জন্য বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের দায়ী করে দফায় দফায় বিক্ষোভ ও মানববন্ধন করেছে।

গত ২৩ সেপ্টেম্বর বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রীকে জিলা স্কুলের ছাত্ররা ইভটিজিং করায় অপ্রীতিকর ঘটনার সূত্রপাত ঘটে। ঐদিন বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা জিলা স্কুলের গেট ভেঙ্গে প্রবেশের চেষ্টা চালায়। পাল্টা হামলার প্রস্তুতি নেয় জিলা স্কুলের শিক্ষার্থীরা। পরে উভয়পক্ষ প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের নিয়ে বৈঠক করে বিরোধ নিষ্পত্তি করেন।

গতকাল বৃহষ্পতিবার দুপুরে জিলা স্কুল ক্যাম্পাসের পাশে সপ্তম শ্রেণীর শিক্ষার্থী সাফায়াতকে কুপিয়ে জখম করা হয়। জিলা স্কুলের শিক্ষার্থীরা এ ঘটনার জন্য বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের দায়ী করে বিক্ষোভ ও মানববন্ধন করে। তারা হামলাকারীদের শাস্তি ও অবিলম্বে বিশ্ববিদ্যালয়ের অস্থায়ী ক্যাম্পাস জিলা স্কুল থেকে সরিয়ে নেয়ার দাবী জানায়।

বরিশাল জিলা স্কুলের প্রধান শিক্ষক সাবিনা ইয়াসমিন জানান, স্কুলের ক্যাম্পাসে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের অস্থায়ী ক্যাম্পাস হওয়ায় তীব্র সমস্যার সৃষ্টি হচ্ছে। ২৩ সেপ্টেম্বর ইভটিজিংয়ের কথা অস্বীকার করে তিনি জানান স্কুলের দুই শিক্ষার্থীর ঝগড়াকে কেন্দ্র করে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা তাদের মারধর করে। প্রধান শিক্ষক জানান স্কুলের শিক্ষার্থীরা কোনো অন্যায় করলে স্কুল কর্তৃপক্ষকে অবহিত করে সুষ্ঠু সমাধান সম্ভব হতো। কিন্তু ২৩ সেপ্টেম্বর আমাকে কোনো কিছু না জানিয়ে স্কুলের ভিতরে ঢুকে ছাত্রদের মারধর, মুল ফটক ও বাই সাইকেল ভাংচুর করে চলে যায়। গতকাল স্কুলের দিবা শাখার সপ্তম শ্রেণীর শিক্ষার্থীকে ব্রাউন কম্পাউন্ড সড়ক দিয়ে বাসায় ফেরার সময় অজ্ঞাত তিন-চার যুবক তার পিঠে ছুরিকাঘাত এবং পিটিয়ে আহত করেছে। আমাদের ধারণা আগের ঘটনার জের ধরে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীরা তাকে কুপিয়েছে। বিষয়টি স্কুল কর্তৃপক্ষ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যকে অবহিত করেছেন বলে প্রধান শিক্ষক জানান।

বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ জানান গত ২৩ সেপ্টেম্বর বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের প্রথম বর্ষের এক ছাত্রীকে স্কুল ছাত্ররা ইভটিজিং করায় তারা নালিশ জানাতে প্রধান শিক্ষিকার কাছে গিয়েছিল। ঐ সময় স্কুলের ছাত্ররা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা চালায়। এরপর বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা স্কুল ক্যাম্পাসে গিয়েছিল। সেখানে অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটে। পরে বিষয়টি মীমাংসা করে দেয়।
বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি ড. হারুনর রশীদন খান জানান, ২৩ সেপ্টেম্বর জিলা স্কুলের শিক্ষার্থীদের সাথে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের ভুলবোঝাবুঝি হয়েছিল। ঐ দিনই পুলিশ প্রশাসনের উপস্থিতিতে সমঝোতা করা হয়। গতকাল স্কুল ছাত্র সাফায়াতের ওপর হামলার সঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয়ের কোনো শিক্ষার্থীরা সম্পৃক্ততার এখনো কোন প্রমাণ মেলেনি। তারপরও যদি এ অভিযোগের প্রমাণ পাওয়া যায় তাহলে সংশ্লিস্ট শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়া হবে।
জিলা স্কুল ও বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মধ্যে কোনো দ্বন্দ্ব হওয়ার কারন নেই। উভয় জ্ঞান অর্জনের জন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে এসেছে।

ফেইসবুকে আমরা

পুরনো সংখ্যা

জুলাই ২০১৭
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« জুন    
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১