July 22, 2017

এক যুগ পর মেয়র কামালের বাসায় এমপি সরোয়ার

--- ৫ অক্টোবর, ২০১৩

news-barisal-today

শাহীন হাফিজ ॥ এক যুগের অভ্যন্তরীন বিরোধ মিটে গেছে সিটি নির্বাচনের পূর্বেই। বিরোধ নিরসনের জন্য সিটি নির্বাচনের পূর্বে মহানগর বিএনপি’র সভাপতি এমপি মজিবর রহমান সরোয়ারের বাসভবনে হাজির হয়েছিলেন জেলা বিএনপি’র সভাপতি আহসান হাবিব কামাল। আহসান হাবিব কামালের বাসভবনে সর্বশেষ মজিবর রহমান সরোয়ার কবে গিয়েছিলেন তা স্মরনে আনতে পারছেন না দলের কর্মী সমর্থকরাও। তবে গতকাল হঠাৎ করেই শনিবার রাতে নব নির্বাচিত মেয়র আহসান হাবিব কামালের বাস ভবনে হাজির হন সংসদ সদস্য ও সাবেক মেয়র মজিবর রহমান সরোয়ার। এ সময় নগর বিএনপি’র সভাপতি মজিবর রহমান সরোয়ার এর সাথে ছিলেন সাধারন সম্পাদক এ্যাডভোকেট কামরুল আহসান শাহীন, প্যানেল মেয়র কেএম শহিদুল্লাহ কবির, কাউন্সিলর  সৈয়দ জাকির হোসেন জেলাল, কাউন্সিলর মীর জাহিদুল কবির, মাইনুল ইসলাম , নব নির্বাচিত কাউন্সিলর হুমায়ন কবির ও সৈয়দ আকবরসহ বেশ কয়েকজন কাউন্সিলর।

রাত ৮টার পর মজিবর রহমান সরোয়ার দলীয় কাউন্সিলরদের নিয়ে আহসান হাবিব কামালের বাসায় পৌছান। সেখানে দুই নেতা কাউন্সিলরদের নিয়ে রুদ্ধদ্বার বৈঠক করেন। তবে সেখানে দলের সিনিয়র নেতা ব্যাতিত সাংবাদিক বা অন্য কাউকে ঢুকতে দেওয়া হয়নি বলে জানা গেছে। বৈঠকের বিস্তারিত কিছু বলতে রাজি হননি অংশ গ্রহনকারীরা। তবে আগামী ৮ অক্টোবর মেয়র কামালের নগর ভবনের দায়িত্ব গ্রহন সম্পর্কেই বিস্তারিত আলোচনা হয়েছে বলে জানিয়েছেন কাউন্সিলররা। কামাল দায়িত্ব গ্রহনের পর দলের ত্যাগী ও পুরানো কর্মীদের মূল্যায়ন এবং সমহারে সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিত করতে দু’ নেতা ঐক্যবদ্ধ হয়েছেন। আগামী সংদস নির্বাচনকে ঘিরেও দু’ নেতা নানান পরিকল্পনা করেছেন।

আপাতত নগর ভবনের সুযোগ- সুবিধা পেতে মরিয়া হয়ে উঠা কর্মী সমর্থকদের ব্যাপারে নব-নির্বাচিত মেয়রকে সর্তক থাকার পরমর্শ দেওয়া হয়েছে। প্যানেল মেয়র নির্বাচন সহ সর্বত্র যেন দলীয় ঐক্য অটুট থাকে তা নিশ্চিত করার জন্য দু’জনই দলের সুবিধাবাদী বিভাজন সৃষ্টিকারীদের ব্যাপারে সর্তক অবস্থানের মতামত ব্যক্ত করেছেন। বৈঠকে আহসান হাবিব কামাল বলেন আমি দলের জন্য মেয়র নির্বাচিত হয়েছি। এখানে কে কার লোক তা এখন দেখার সুযোগ নেই। দলের সাথে যারা বেঈমানী করেছে সেই সব সুবিধাবাদীদের বাদ দিয়ে সকল কর্মী সমর্থকরাই সমান সুযোগ সুবিধা পাবে। আমার দপ্তরে এসে মজিবর রহমান সরোয়ারের বিরুদ্ধে কিছু বলে কেউ লাভবান হতে পারবেন না। বরং কেউ এ রকম আশা করে এলে তিরস্কার ছাড়া কিছুই পাবেন না। তিনি বলেন সিটি নির্বাচন আমার সকল বিরোধী ভূলে যে ভাবে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করেছি আগামী দিনেও সে ভাবেই দলের কর্মীদের চলতে হবে। সিটি নির্বাচনে মজিবর রহমান সরোয়ারের বলিষ্ট ভূমিকার জন্য কামাল তার কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

মজিবর রহমান সরোয়ার একই মতামত ব্যক্ত করে বলেছেন শুধু নগর ভবন নয়, দল ক্ষমতায় গেলেও সকল সুযোগ সুবিধা সমান ভাবেই পাবেন ত্যাগী কর্মীরা। তাই দলের মধ্যে বিভাজন তৈরী না করে আগামী আন্দোলন সংগ্রামে সকলকে ঐক্যবদ্ধ থাকার জন্য দু’ নেতার পক্ষ থেকে সর্বাতœক ত্যাগের কথা জানিয়েছেন তারা। একই সাথে বার বার নেতা পরিবর্তনকারী সুবিধাবাদীদের ব্যাপারে সর্তক থাকতে কাউন্সিলরগন তাদের মতামত তুলে ধরেন বলে বৈঠক সূত্র জানায়।  

ফেইসবুকে আমরা

পুরনো সংখ্যা

জুলাই ২০১৭
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« জুন    
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১