July 22, 2017

শেবামেকে মাফ চেয়েও পার পেলেন না ছাত্রলীগের দুই নেতা

--- ৭ অক্টোবর, ২০১৩

index

বরিশাল টুডে ॥ বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকিলে কলেজে ছাত্রলীগের সিনিয়র দুই যুগ্ম আহবায়ক কর্তৃক তিন ব্যাচ জুনিয়র ছাত্রদলের কর্মীদের উপর হামলার ঘটনায় ছাত্রলীগ নেতাদ্বয় মাফ চেয়ে পার পেলেনে না।
তাদের বিরুদ্ধে হামলার শিকার ছাত্রদলের কর্মী আহত রিজন ও আরিফ মেডিকেল কলেজ অধ্যক্ষ বরাবর গত শনিবার পৃথক দুটি লিখিত অভিযোগ দেয়। অভিযোগের ভিত্তিতে ৩ সদস্য করে দুই অভিযোগে পৃথক দুটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। এবং তদন্ত কমিটিদ্বয়কে আগামী ৩ কার্যদিবসের মধ্যে তদন্ত প্রতিেিবদন জমা দেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

কলেজের প্রশাসনিক কার্যালয় সূত্রে জানাযায়, ৪৩ তম ব্যাচের ছাত্র আরিফ হোসেনের দেয়া অভিযোগের ভিত্তিতে নাক,কান,গলা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ডাঃ মোঃ মাহবুবুর রহমানকে সভাপতি করে অর্থো-সার্জারীর সহকারী অধ্যাপক ডাঃ মোঃ মনিরুজ্জামানকে সদস্যসচিব ও নাক,কান,গলা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ডাঃ শেখর কৃষ্ণকে সদস্য করে তিনসদস্যের কমিটি গঠন করা হয়েছে।
অপরদিকে ৪৩ তম ব্যাচের ছাত্র রিজনের দেয়া অভিযোগের ভিত্তিতে নাক,কান,গলা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ডাঃ মোঃ মাহবুবুর রহমানকে সভাপতি করে নাক,কান,গলা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ও দায়িত্বপ্রাপ্ত উপাধাক্ষ ডাঃ এস.এম সারওয়ারকে সদস্যসচিব ও নাক,কান,গলা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ডাঃ মোঃ ফারুকুজ্জামানকে সদস্য করে তিনসদস্যের কমিটি গঠন করা হয়েছে।

উল্লে¬খ্য এই যে, শুক্রবার ক্যাম্পাসে ছাত্রদল আয়োজিত শুভেচ্ছা মিছিলে আরিফ ও রিদন নামে ৪৩ তম ব্যাচের ২ ছাত্র যায়। এরই জের ধরে ছাত্রাবাসে ঢোকা মাত্র ছাত্রলীগর নামধারী দ্ইু নেতা মঞ্জুরুল ইসলাম ভূইয়া রাফি ও প¬াবন ছাত্রদল কর্মী আরিফ ও রিদনকে বেধম মারধর করে। এ ঘটনা ছাত্রদলের সিনিয়র নেতারা জানতে পেরে আরিফ ও রিদনকে উদ্ধার করে। এ নিয়ে ক্যাম্পাসে উভয় পক্ষের মধ্যে উত্তেজনার সৃষ্টি হলে অবস্থা বেগতিক দেখে রাফি ও প¬াবন জুনিয়র ওই দুই ছাত্রের কাছে মাফ চায়। তবে রাতে রিদনের কানে ব্যাথা সৃষ্টি হলে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। জানাযায়, রিদনের কানের পর্দা ফেটে গেছে।

ফেইসবুকে আমরা

পুরনো সংখ্যা

জুলাই ২০১৭
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« জুন    
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১