July 22, 2017

প্রত্যাশিত পয়সারহাট সেতু ও মহাসড়ক আগামীকাল উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী

--- ১১ নভেম্বর, ২০১৩

news-prime-minstar

 খোকন আহম্মেদ হীরা ॥ দক্ষিণাঞ্চলের সাথে সড়ক পথে যোগাযোগের একমাত্র বরিশাল-ঢাকা মহাসড়কের চেয়ে সুবৃহৎ গৌরনদী-গোপালগঞ্জ মহাসড়কের নির্মান কাজ সম্পন্ন করা হয়েছে। ইতোমধ্যে পয়সারহাট নদীর ওপর নির্মিত হয়েছে দক্ষিণাঞ্চলের দ্বিতীয় বৃহত্তম সেতু। মঙ্গলবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়া উপজেলার ভাংগারহাটের জনসভায় প্রধান অতিথির ভাষণে বহুকাঙ্খিত পয়সারহাট ব্রিজ ও মহাসড়ক উদ্বোধন করবেন।

বিগত আওয়ামী লীগ সরকারের সময়ে (২০০০সালে) তৎকালীন স্থানীয় সংসদ সদস্য ও জাতীয় সংসদের চীফ হুইপ আবুল হাসানাত আব্দুল্লাহর চেষ্টায় গৌরনদী-গোপালগঞ্জ ভায়া আগৈলঝাড়া, পয়সারহাট মহাসড়কসহ পয়সারহাট নদীর ওপর ১৭ কোটি ৭৬ লাখ টাকা ব্যয়ে দেশের দক্ষিণাঞ্চলের দ্বিতীয় বৃহত্তম পয়সারহাট সেতু নির্মানের কাজ শুরু করা হয়। পরবর্তীতে রাজনৈতিক পটপরিবর্তনের পর কাজটি পুরোপুরি বন্ধ হয়ে যায়। ফলে জনগুরুতপূর্ণ এ সড়ক দিয়ে যাতায়াতের ক্ষেত্রে লক্ষ লক্ষ জনসাধারনের দীর্ঘদিন থেকে চরম ভোগান্তি পোহাতে হয়। বর্তমান মহাজোট সরকারের শুরুতেই পূর্ণরায় আবুল হাসানাত আব্দুল্লাহর প্রানন্তর চেষ্টায় অবশেষে পয়সারহাট নদীর ওপর সেতু নির্মানের কাজ সম্পন্ন করা হয়। যা ইতোমধ্যে এতদাঞ্চলের ভ্রমন পিপাসুদের কাছে একটি বিনোদন কেন্দ্রে পরিনত হয়েছে। একই সাথে দীর্ঘদিনের অবহেলিত গৌরনদী-গোপালগঞ্জ মহাসড়ক নির্মান কাজও সম্পন্ন করা হয়েছে। সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, এডিপির অর্থায়নে আগৈলঝাড়া উপজেলাঅংশে ৩৫ কোটি টাকায় গৌরনদী থেকে আগৈলঝাড়া মহাসড়কে ৮টি কালভার্ট একটি ব্রীজসহ ১৫.২৬ কি.মি পাকা সড়কের নির্মান কাজ ইতোমধ্যেই সমাপ্ত হয়েছে। শেষের পথে বাইপাস সড়কের কাজ। দীর্ঘদিনের প্রতিক্ষার পর অবশেষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মহাসড়কটি উদ্বোধন করলে বরিশালের সাথে গোপালগঞ্জ হয়ে খুলনার দুরত্ব কমে যাবে প্রায় দেড়’শ কিলোমিটারেরও বেশি। এলাকার জীবন যাত্রার ওপর পরবে ইতিবাচক প্রভাব। বরিশাল সড়ক ও জনপদ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী শাহ মোহাম্মদ সামস মোকাদ্দেস জানান, ১২ নভেম্বর প্রধানমন্ত্রী কোটালীপাড়ার ভাংগার হাটের জনসভায় পয়সারহাট ব্রিজ ও মহাসড়ক উদ্বোধন করবেন।

যোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের অর্থায়নে এবং সড়ক ও জনপদ অধিদপ্তরের বাস্তবায়নে ৮টি পিলার দ্বারা পয়সারহাট নদীর ওপর ১৮ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত দক্ষিণাঞ্চলের দ্বিতীয় বৃহত্তম সেতুটি রহমান ফাউন্ডেশন কনসোর্টিয়াম নামক ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান নির্মাণ করেছে। সেতুটির দৈর্ঘ্য ২৬০ দশমিক ৪০ মিটার এবং ফুটপাথ ও রেলিংসহ প্রস্থ ১০ মিটার।

সড়ক ও জনপদ সূত্রে জানা গেছে, গৌরনদী-গোপালগঞ্জ ভায়া আগৈলঝাড়া, পয়সারহাট ও কোটালীপাড়া মহাসড়ক নির্মাণের জন্য ২০০০ সালে দরপত্র আহবান করা হলেও সরকারের পটপরিবর্তনে তা বাতিল হয়ে যায়। পরবর্তীতে ২০০৯ সালে দ্বিতীয় দফায় দুটি ভাগে ৩৫ কোটি টাকা ব্যয়ে ১৬ কিলোমিটার মহাসড়ক নির্মানের জন্য দরপত্র আহবান করা হয়। এরমধ্যে বরিশাল-ঢাকা মহাসড়কের গৌরনদী বাসষ্ট্যান্ড থেকে আগৈলঝাড়া সদর পর্যন্ত ১৪ কোটি টাকা ব্যয়ে মহাসড়ক নির্মাণ কাজটি সম্পন্ন করেন বরিশালের ওটিবিএল নামের একটি ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান। আগৈলঝাড়া উপজেলা সদর থেকে পয়সারহাট পর্যন্ত ২১ কোটি টাকা ব্যয়ে অপর অংশের কাজটি সম্পন্ন করেন ফরিদপুরের সেঙ্গুইন ইঞ্জিনিয়ারিং কোম্পানী লিমিটেড নামের আরেক ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান। কোটালীপাড়া ও গোপালগঞ্জ অংশের কাজ সম্পন্ন করছেন ঐ এলাকার কয়েকটি ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান।

ফেইসবুকে আমরা

পুরনো সংখ্যা

জুলাই ২০১৭
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« জুন    
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১