July 22, 2017

বরিশালে মাঠে নেই বিএনপির সাবেক এমপিরা ॥ নির্বাচন মুখী তৃণমূল কর্মীরা

--- ১৫ নভেম্বর, ২০১৩

BNP-Logo

খোকন আহম্মেদ হীরা ॥ বিএনপির দেশব্যাপী বিক্ষোভ কর্মসূচী, দু’দফার টানা হরতালসহ যেকোন দলীয় কর্মসূচীতে বরিশাল জেলার ছয়টি আসনের মধ্যে ৫ টিতেই দেখা মেলেনি বিএনপির সাবেক সংসদ সদস্যদের। এমনকি আগামী দশম সংসদ নির্বাচনে অধিকাংশ নির্বাচনী এলাকার বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশীরা মাঠে অনুপস্থিত থাকলেও বিভিন্নস্থানে বিক্ষোভ মিছিলের ফটোসেশন করে প্রেসবিজ্ঞপ্তি দিতে তারা ভুল করছেন না।

বিএনপির পদধারী অনেক নেতারও দেখা মেলেনি আন্দোলনগুলোতে। তাদেরস্থানে নতুন ও তরুণ প্রার্থীদের মাঠে দেখা মিলেছে আন্দোলনকারী হিসেবে। অপরদিকে কেন্দ্র ঘোষিত যেকোন ধরনের সহিংস কর্মসূচী প্রত্যাহার করে নির্বাচনে অংশগ্রহন করার জন্য দলীয় চেয়ারপার্সনের কাছে দাবি জানিয়েছেন বিএনপির তৃণমূল পর্যায়ের নেতা-কর্মী ও সমর্থকেরা। নামপ্রকাশ না করার শর্তে বিএনপি দলীয় সাবেক কয়েকজন সংসদ সদস্যরা জানিয়েছেন, দলে পদ না থাকার কারণেই তারা কোন ধরনের রিক্স নিচ্ছেন না।
সূত্রমতে, বরিশাল-৫ আসনে আগামী সংসদ নির্বাচনে একক প্রার্থী মহানগর বিএনপির সভাপতি ও বর্তমান সাংসদ এ্যাডভোকেট মজিবর রহমান সরোয়ার। সবগুলো হরতাল ও আন্দোলনে তার উপস্থিতি ছিলো সরব। এখানে সরোয়ারের রয়েছে শক্তঘাঁটি। পর পর তিনবার তিনি এ আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন। বরিশাল-১ আসন থেকে ৮ম সংসদ নির্বাচনে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন বিএনপি দলীয় এম. জহির উদ্দিন স্বপন। বিগত ওয়ান ইলেভেনের সময় তিনি সংস্কারপন্থি দলে যোগ দেয়ায় নবম সংসদ নির্বাচনে এখানে দলীয় মনোনয়ন পেয়েও পরাজিত হন ইঞ্জিনিয়ার আব্দুস সোবহান। সংস্কারের কালিমায় দীর্ঘদিন থেকে দলের কেন্দ্রীয় ও তৃণমূল পর্যায়ে কোণঠাসা অবস্থায় রয়েছেন সাবেক সাংসদ স্বপন। ইঞ্জিনিয়ার আব্দুস সোবহান ব্যবসায়ীক কাজে ঢাকায় ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন। দীর্ঘদিন থেকে এখানকার রাজনৈতিক মাঠ ছিলো গৌরনদী উপজেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক বদিউজ্জামান মিন্টুর দখলে। সম্প্রতি তিনি গ্রেফতার হয়ে কারাভোগ করছেন। ফলে বর্তমানে নির্বাচনী মাঠ দখল করে রেখেছেন বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশী নতুন মুখ কেন্দ্রীয় বিএনপি নেতা মোঃ আব্দুস সালাম বাবুল। দলীয় কর্মসূচী থেকে শুরু করে প্রতিটি হরতালে তিনি নেতা-কর্মীদের নিয়ে মাঠ দাঁপড়িয়ে বেড়াচ্ছেন। মোঃ আব্দুস সালাম বাবুল জানান, আন্দোলন সংগ্রামের সময় যারা নিজেদের রক্ষা করতে আত্মগোপন করেছেন তাদেরসহ সারাদেশের ন্যায় এখানেও বিএনপির সংস্কারপন্থি ও বসন্তের কোকিলের ন্যায় প্রার্থীদের তৃণমূল নেতা-কর্মীরা আস্তাকুঁড়ে ফেলেছে।

বরিশাল-২ আসনে অস্টম সংসদ নির্বাচনের বিএনপির সাংসদ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল নবম সংসদ নির্বাচনে ঢাকা থেকে নির্বাচনে অংশগ্রহন করায় এখানে দলীয় প্রার্থী হয়েও শিল্পপতি এস.সরফুদ্দিন আহমেদ সান্টু পরাজিত হন। পরবর্তীতে মামলা সংক্রান্ত ঘটনায় দীর্ঘদিন থেকে তিনি নির্বাচনী এলাকায় অনুপস্থিত রয়েছেন। এ সুযোগে নতুন প্রার্থী হিসেবে ঢাকার রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি ইলিয়াস খান মাঠ চষে বেড়াচ্ছেন। বরিশাল-৩ আসনে অস্টম সংসদ নির্বাচনে বিএনপি দলীয় সাংসদ মোশারফ হোসেন মঙ্গুকে সংস্কারপন্থি হিসেবে দীর্ঘদিন থেকে দলে কোনঠাসা করে রাখা হয়েছে। তিনি এখন অনেকটাই নিস্ক্রিয় অবস্থায় রয়েছেন। নবম সংসদ নির্বাচনে এখানে বিএনপির ভাইসচেয়ারম্যান সেলিমা রহমান মনোনয়ন পেয়েও পরাজিত হন। অস্টম সংসদ নির্বাচনে বরিশাল-৪ আসনের সংসদ সদস্য শাহ্ মোহাম্মদ আবুল হোসেন সংস্কারপন্থি দলে যোগদান করায় নবম সংসদ নির্বাচনে এখানে মেজবাহ উদ্দিন ফরহাদ সাংসদ নির্বাচিত হন। বরিশাল-৬ আসনের সাবেক সাংসদ আবুল হোসেন খান ও মেজবা উদ্দিন ফরহাদ দু’জনেই বরিশালে সাংগঠনিক কর্মকান্ড নিয়ে ব্যস্ত থাকায় দুটি নির্বাচনী এলাকায়ই নেতৃত্ব সংকট চলছে।

বিএনপির তৃণমূল পর্যায়ের অসংখ্য নেতা-কর্মী ও সমর্থকেরা বলেন, কাজ করি-ভাত খাই, ভাল লাগে ধানের শীর্ষে ভোট দেই। এরমানে এই নয় যে, হরতালের নামে জ্বালাও পোড়াও করে দেশকে ধ্বংষ করতে হবে। দলের চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার উদ্দেশ্যে তারা আরো বলেন, সহিংস কর্মসূচী না দিয়ে নির্বাচনে অংশগ্রহন করুন, সিটি কর্পোরেশনের ন্যায় জনগন ভোটের মাধ্যমে রায় দেবে।

ফেইসবুকে আমরা

পুরনো সংখ্যা

জুলাই ২০১৭
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« জুন    
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১