July 23, 2017

বরিশালে কলেজ ছাত্র খুন ॥ ১৬টি বসত ঘরে আগুন

--- ১৫ নভেম্বর, ২০১৩

barisal-pic

বরিশালে সদর উপজেলার চরকাউয়া এলাকার খানপুরায় গ্রামে প্রতিপক্ষের ধারালো দায়ের কোপে পারভেজ গাজী (২০) নামে এক যুবক ঘটনাস্থলেই প্রাণ হারায়।

বৃহস্পতিবার রাতে কালীখোলা গ্রামে ক্রিকেট খেলাকে কেন্দ্র করে শামীম গাজী-পাভেল গাজী গ্রুপের সঙ্গে, বিধান, পীযূষসহ আরও কয়েকজনের প্রথমে বাগবিতণ্ডা হয়। পরে তা সংঘর্ষে রূপ নেয়।

এ ঘটনায় শামীম গাজী (২২) নিহত হন এবং তিনজন আহত হন। আহত তিনজনকে বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

শুক্রবার সকালে জাহিরুল নিহতের গুজব ছড়িয়ে পরলে উত্তেজিত হয়ে কয়েক শ মানুষ পন্ডিত বাড়ীর ১১টি, ধোপা বাড়ীর ৩টি ও ধিরাজ বাড়ীর ১টি বসত ঘরে আগুন দেয়। এতে ১৬টি বাড়ি ভস্মিভুত হয়।

তবে এর আগেই বাড়ীর লোকজন অন্যত্র সরিয়ে নেয় স্থানীয় প্রশাসন। পরবর্তীতে বরিশাল ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের বেশ কয়েকটি টিম প্রায় তিন ঘন্টা চেস্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রনে নেয়ার আগেই সব পুড়ে ছাই হয়ে যায়।

খবর পেয়ে বরিশাল জেলা প্রশাসক মো. শহীদুল আলম ও মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার (বিএমপি) মো. শামসুদ্দিন সহ উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

পাশাপাশি ঘটনাস্থলে বিপুল সংখ্যক পুলিশ ও র‌্যাব সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে।  হত্যা ও অগ্নিকান্ডের ঘটনায় এ পর্যন্ত উভয় গ্রুপের চারজনকে আটক করা হয়েছে।

এর মধ্যে শুক্রবার সকালে অগ্নিকান্ডর ঘটনায় নিহত পারভেজের খালাতো ভাই পাভেলকে আটক করা হয়েছে। এর আগে বৃহস্পতিবার এ ঘটনা পূর্ব রাতে হত্যা সন্দিগ্ধ তিন জনকে আটক করা হয়। এরা হলেন, পিযুষ, শন্তু ও সমীর।

এদিকে পুলিশ কমিশনার পরিদর্শনকালে হত্যাস্থল চরকাউয়া মাতৃ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে অস্থায়ী পুলিশ স্থাপনের নির্দেশ দিয়েছেন। বর্তমান পরিস্থিতি শান্ত জানিয়ে পুলিশ কমিশনার বলেন, এঘটনায় ৪জনকে আটক করা হয়েছে।

নিহত পরভেজ ঝালকাঠি সরকারি কলেজের অনার্স দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র ও বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের ইলেকট্রিশিয়ান সেলিম গাজীর পুত্র ছিলো।

ফেইসবুকে আমরা

পুরনো সংখ্যা

জুলাই ২০১৭
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« জুন    
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১