July 22, 2017

বরিশালে কলেজ ছাত্র খুন ও ১৬ বসত ঘরে অগ্নিসংযোগের ঘটনায় আটক -২৫ ॥ তদন্ত কমিটি গঠন

--- ১৬ নভেম্বর, ২০১৩

barisal-pic

নগর সংলগ্ন চরকাউয়া এলাকায় কলেজ ছাত্র খুনের ঘটনাকে কেন্দ্র করে সংখ্যালঘু হিন্দু সম্প্রদায়ের বাড়ি ঘরে ব্যাপক হামলা ভাংচুর ও লুটপাটের ঘটনায় ২৫ জনকে আটক করা হয়েছে। এদের মধ্যে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের ৫ জনকে হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত সন্দেহে এবং ২০ জনকে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের বাড়ি ঘরে হামলার অভিযোগে আটক করা হয়েছে বলে পুলিশ জানায়।

জেলা প্রশাসক শহীদুল আলম ক্ষতিগ্রস্তদের প্রতি পরিবারকে তাৎক্ষনিক নগদ ৫ হাজার টাকা করে আর্থিক অনুদান প্রদান করেছেন। গতকাল শনিবার ক্ষতিগ্রস্তদের পরিবার প্রতি ৩০ কেজি করে চাল দেয়া হয়েছে। জেলা প্রশাসক জানান, ঘর নির্মাণের জন্য ক্ষতিগ্রস্তদের অনুদান প্রদান করা হবে। ঘটনা খতিয়ে দেখতে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। অতিরিক্ত জেলা প্রশাসককে (শিক্ষা) প্রধান করে গঠিত এ তদন্ত কমিটি শনিবার কাজ শুরু করেছে বলে জানিয়েছেন কমিটির সদস্য সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বেগম শামীমা ফেরদৌস।

পুলিশের বিরুদ্ধে নিষ্ক্রিয়তার অভিযোগ ঃ

চর আইচা গ্রামের ক্ষতিগ্রস্ত এলাকায় শুক্রবার ও শনিবার সরেজমিনে গিয়ে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের তেমন কোনো সদস্যকে পাওয়া যায়নি। হাতে গোনা যে ২/১ জন ধ্বংসস্তুপের উপর নির্বাক হয়ে দাঁড়িয়ে আছেন তাদের মধ্যে সুধীর রঞ্জন ও সুধাংশু হালদার জানান, তারা বা তাদের পরিবারের কোনো সদস্য পারভেজ হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত নয়। তারা অহেতুক প্রতিহিংসার শিকার হয়েছেন। তাদের সাথে ক্ষতিগ্রস্ত শ্যামল, ধীরাজ সহ কয়েকজন জানান, পুলিশের সামনেই হামলা-ভাংচুর ও লুটপাট শেষে অগ্নিসংযোগ করা হয়েছে। পুলিশ এসময় নিরব দর্শকের ভূমিকায় অবতীর্ন হয়েছিলো। ঘটনার সময় সেখানে ৩ জন কনস্টেবল নিয়ে দায়িত্বে থাকা এস আই মনিরুল ইসলাম জানান, বৃহস্পতিবার রাতে তাদের সাথে আরো পুলিশ সদস্য ঐ গ্রামে মোতায়েন ছিলো। শুক্রবার ভোরে তাদেরকে প্রত্যাহার করে মাত্র ৪ জনকে ঘটনাস্থলে রাখা হয়েছিলো। সহস্রাধিক গ্রামবাসী এ হামলার সময় ৪ জন পুলিশের পক্ষে প্রতিহত করা সম্ভব ছিলো না। চর কাউয়া ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগ নেতা সুলতান আহমেদ খান অভিযোগ করেন হামলা শুরু হওয়ার আগেই তিনি ফোন করে পুলিশকে বিষয়টি অবহিত করেছিলেন। এরপর হামলার সময় বার বার ফোন করা হলেও ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ পাঠানো হয়নি। ঘন্টাব্যাপী ধ্বংসযজ্ঞের পর নৌবন্দর থানার ওসি সহ কিছু সংখ্যক পুলিশ ঘটনাস্থলে হাজির হয়। বেলা ১টার দিকে জেলা প্রশাসক শহীদুল আলম ও পুলিশ কমিশনার মোঃ শামসুদ্দিন ঘটনাস্থল পরিদর্শনে যান। তখন সেখানে বিপুল সংখ্যক পুলিশের পাশাপাশি র‌্যাব মোতায়েন করা হয়। র‌্যাব-পুলিশের উপস্থিতির সময় হামলার শিকার হিন্দু সম্প্রদায় ও হামলকারী গ্রামবাসীদের কাউকে খুঁজে পাওয়া যায়নি।

পুরুষ শূন্য গ্রাম ঃ

অগ্নিসংযোগের আগেই চরআইচার হিন্দু সম্প্রদায়ের লোকজন ঘরবাড়ি ছেড়ে পালিয়ে যায়। ফলে হামলার সময় কেউ হতাহত হয়নি। ঘটনার পর র‌্যাব-পুলিশের উপস্থিতিতে শুক্রবার বিকেলে ধ্বংসস্তুপের উপরে এসে নারী সদস্যরা বিলাপ করতে থাকেন। গগনবিদারী কান্না ও আর্তনাদে পরিবেশ ভারী হয়ে উঠে। শুধাংশু হালদারের স্ত্রী কান্না বিজড়িত কন্ঠে তার স্বামী নদীতে মাছ শিকার করে বহু কষ্টে সংসার চলছে। এনজিও’র কাছ থেকে ঋণ সহায়তা নিয়ে জমানো টাকায় তৈরী করেছিলেন নতুন ঘর। ঘরের চিহ্ন পর্যন্ত এখন নেই তার বাড়িতে। শ্যামল লাল হালদার, কৃষ্ণ কান্ত দাশ, সুমন দাশ, ধীরেন্দ্র নাথ শিকদার, চিত্তরঞ্জন হালদার ও দ্বীপরঞ্জন হালদারের বসত ভিটায় তাদের স্ত্রী ও শিশু সন্তানদের দেখা গেলেও তারা কোথায় তার উত্তর মিলছে না। নারী সদস্যরা জানান, পুলিশ পারভেজ হত্যা মামলায় যে ৪ জনকে গ্রেফতার করেছে তাদের মধ্যে শুধুমাত্র পিযুষ একা হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত। বাকিরা সকলেই নিরহ। এদের মধ্যে পঙ্গু ও বৃদ্ধকেও ধরে নেয়া হয়েছে। এই গ্রেফতার আতংকের কারনে পুরুষরা গ্রামে ফিরতে পারছে না। একই অবস্থা মুসলমানদের পরিবারগুলোতে। হিন্দু সম্প্রদায়ের বাড়িঘরে অগ্নিসংযোগের অভিযোগে গ্রেফতার আতংকে মুসলমান পরিবারের পুরুষ সদস্যরা আগেই ঘরবাড়ি ছাড়ে। এরপরও শুক্রবার রাতে ২১ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। যাদের গ্রেফতার করা হয়েছে তারা অধিকাংশ নিরহ এবং বয়স্ক। গ্রামের নারী সদস্যরা জানান সম্ভবত রাতে গ্রামে ঐ ২১ জন পুরুষ সদস্যই উপস্থিত ছিল। এখন আর কেউ গ্রামে নেই। পুরো গ্রাম জুড়েই শুন-সান নিরবতা। হিন্দু ও মুসলিম সম্প্রদায়ের কোনো পুরুষ ঘরে ফিরতে সাহস পাচ্ছে না। যদিও গতকাল জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে সেখানে বৈঠক করে নিরহ গ্রামবাসীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত ও শিশুদের নিরাপদে স্কুলে পাঠানোর ব্যাপারে আশ্বাস দেয়া হয়। কিন্তু তবুও ভরসা পাচ্ছে না গ্রামের পুরুষ সদস্যরা।

ফেইসবুকে আমরা

পুরনো সংখ্যা

জুলাই ২০১৭
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« জুন    
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১