July 22, 2017

বর্তমান সরকারকে মেনে নিয়ে উপজেলা নির্বাচনে অংশ নিচ্ছে ১৮ দল –বরিশালে শিল্প মন্ত্রী আমু

--- ৩০ জানুয়ারি, ২০১৪

amu-barisal

শাহীন হাফিজ ॥ আওয়ামীলীগের উপদেষ্টা মন্ডলির সদস্য ও বর্তমান সরকারের শিল্প মন্ত্রী আমির হোসেন আমু বলেছেন, জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনার অধিনে অনুষ্ঠিতব্য উপজেলা নির্বাচনে অংশ নিচ্ছে ১৮ দলীও জোট। তার মনে এ সরকারকে মেনে নিয়েছে তারা। এর মধ্য দিয়ে আরো একবার পরাজয় বরণ করে নিতে হলো ১৮ দলকে। বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১২ টায় বরিশাল সার্কিট হাউজ মিলনায়তনে গন সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে শিল্প মন্ত্রী আমির হোসেন আমু আরো বলেন, বিগত দিনে মানুষ হত্যা, মা-বোনদের ইজ্জত আর ক্ষুদার্থ শিশুদের দগ্ধ করার দায়ভার নিতে হবে ১৮ দলকেই। বাংলার মাটিতেই হত্যাকারীদের বিচার হবে।
দক্ষিণাঞ্চলের উন্নয়নের সব ধরনের সহযোগীতা করার আশ্বাস প্রদান করে আওয়ামীলীগের নেতাকর্মিদের উদেশ্যে মন্ত্রীবলেন, বর্তমান সরকারের ক্ষতি হয় এমন কাজ থেকে আমাদের বিরত থাকতে হবে।
সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি ও বরিশাল ৫ আসনের সংসদ সদস্য শওকত হোসেন হিরন। অনুষ্ঠানে আওয়ামীলীগের এ প্রবীন নেতাকে সংবর্ধনা জানায়, বরিশাল মহানগর আওয়ামীলীগ ও এর অঙ্গ সহযোগী সকল সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।
এরপর দুপুরে জেলা প্রশাসকের পর্যায়ের কর্মকর্তাদের সাথে মতবিনিময়কালে প্রধান অতিথির বক্তৃতাকালে শিল্পমন্ত্রী আমু সরকারী কর্মকর্তাদের ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, নির্বাচনকালীন সময় সংবিধান সমুন্নত রাখতে প্রশাসন সহ সরকারী কর্মকর্তারা বিশেষ ভূমিকা পালন করেছে। তিনি বলেন প্র্যাচ্যের ভেনিস খ্যাত বরিশালের ঐতিহ্যকে পুনরুদ্ধার করতে করতে সকলকে এগিয়ে আসতে হবে। বরিশালের উন্নয়নে বিসিক শিল্প এলাকা সহ বন্ধ সকল প্রজেক্ট পুনরায় চালু করা হবে। মন্ত্রী বলেন, হরতাল অবরোধের নামে মানুষ পুড়িয়ে নৈরাজ্য সৃষ্টি করে বিএনপি- জামায়াত প্রমাণ করেছে তারা পাকহানাদারদের দোসর। প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে আমরা আন্তর্জাতিক ভাবে এগিয়ে রয়েছি। জঙ্গি নিরোধ ও দারিদ্র, ক্ষুধা সহ ৬টি সূচকে বাংলাদেশ এগিয়ে থাকায় আন্তর্জাতিক মহল সন্তুষ্ট। মতিবিনিময় সভায় সভাপতিত্ব করেন জেলা প্রশাসক মোঃ শহীদুল আলম। বক্তৃতা করেন, বরিশাল সদর আসনের সংসদ সদস্য শওকত হোসেন হিরন, বরিশাল-২ আসনের সংসদ সদস্য তালুকদার মোঃ ইউনুস। এসময় বিভিন্ন দপ্তরের সরকারী কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।
এর আগে বেলা পৌনে ১২টায় হেলিকপ্টার যোগে বঙ্গবন্ধু উদ্যানে তিনি আসলে তাকে ফুল দিয়ে বরণ করে নেয় মহানগর আওয়ামীলীগ। এরপর মটোর শোভা যাত্রা সহকারে তাকে সার্কিট হাউজে নিয়ে আসা হয়।
উল্লেখ্য আমির হোসেন আমু দক্ষিণাঞ্চলের অন্যতম রাজনৈতিক প্রবিন নেতা বলে দাবী করেছেন এখানকার স্থানীয় নেতা-কর্মিরা। তিনি ছাত্র জীবনে বরিশাল ব্রজমোহন বিশ্ব বিদ্যালয় কলেজের ছাত্র সংসদের দুই বার ভিপি নির্বাচিত হন। এরপর জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি, সম্পাদক ও সাংগঠনিক সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন। পরে যুবলীগের সভাপতি, সম্পাদক ছিলেন। পরবর্তিতে বরিশাল জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতিও ছিলেন। ১৯৭০’র নির্বাচনে বৃহত্তর বরিশাল আসনের বিপুল ভোটে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। এছাড়া ১৯৭৩ সালের ঝালকাঠী -১ আসন থেকে নির্বাচনে অংশ গ্রহন করেন।

ফেইসবুকে আমরা

পুরনো সংখ্যা

জুলাই ২০১৭
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« জুন    
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১