July 23, 2017

বরিশাল বিভাগের তিনটি উপজেলায় নির্বাচন চলছে

--- ১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৪

upzilla-election_barisal

বাকেরগঞ্জ, গৌরনদী ও লালমোহন উপজেলা নির্বাচন চলছে। এই তিন উপজেলার মোট ৫ লাখ ১৯ হাজার ৮শ’ ৩ ভোটার চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদের ৩৫ প্রার্থী ভাগ্য নির্ধারণ করবে। এদিকে মোট ২শ ৬টি ভোট কেন্দ্রের মধ্যে ১শ’৩৩টি ভোট কেন্দ্রকে অধিকতর ঝুঁকিপূর্ণ দাবী করেছেন নির্বাচন কর্মিশনরা। সে ক্ষেত্রে অধিকতর ঝুকিপূণ কেন্দ্র গুলোতে অতিরিক্ত আইনশৃঙ্খলাবাহিনীর সদস্য মোতায়নের স্বিধান্ত নিয়ে হয়েছে। ইতো মধ্যে সকল ভোট কেন্দ্র গুলোতে নির্বাচনী সামগ্রি পৌছে দেয়া হয়েছে।

বরিশাল জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটানিং অফিসার মো. দুলাল তালুকদার জানান, বরিশালের গৌরনদী ও বাকেরগঞ্জের প্রতিটি কেন্দ্রে ইতো মধ্যে নির্বাচন সামগ্রি পিজাডিং অফিসারদের নেতৃত্যে পৌছে দেয়া হয়েছে। তিনি বলেন বরিশালের বাকেরগঞ্জে ৯৪টি ভোট কেন্দ্রের মধ্যে ৬৮টি ভোট কেন্দ্র খুবই ঝুকিপূণ। এছাড়া গৌরনদীর ৪৫টি ভোট কেন্দ্রের মধ্যে ২৮ টি ভোট কেন্দ্র ঝুকিপূণ। তাই নির্বাচন সুষ্ঠ করার লক্ষ্যে অতিগুরুত্ব পূণ বা ঝুকিপূণ কেন্দ্র গুলোতে অতিরিক্ত আইনশৃঙ্খলাবাহিনীর সদস্য মোতায়নের স্বিধান্ত নিয়ে হয়েছে। সে ক্ষেত্রে প্রতিটি সাধারণ ভোট কেন্দ্র গুলোতে একজন পুলিশ অফিসারের সাথে একজন কনেস্টাবল এবং ১০ জন অনসার বাহিনীর সদস্য থাকবেন আর ঝুকিপূণ কেন্দ্র গুলোতে একজন অফিসার ২ জন কনেস্টাবল এবং ১০ জন আনসার বাহিনীর সদস্য থাকবেন। এর পাশাপাশি ভোট অনুষ্ঠিত ওই দুই উপজেলায় নির্বাহী ম্যাজেস্ট্রেটদের নেতৃত্যে ৮টি টিম ও পুলিশদের নেতৃত্যে ২টি মোবাইল টিম থাকবে। একই সাথে সেনাবাহিনী, র‌্যাব ও পুলিশের একাধিক টহল টিম থাকবে।

ভোলা জেলা প্রশাসক সেলিম রেজা জানান, ১৯ ফেব্র“য়ারী (কাল) ভোলা জেলার শুধু মাত্র লালমোহন উপজেলায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এ উপজেলার ৯টি ইউনিয়নের ৩৭টি ভোট কেন্দ্রের মধ্যে ৩৭টি ভোট কেন্দ্র অধিকতর ঝুকিপূণ। আর এ ঝুকিপূণ ভোট কেন্দ্র গুলোতে অতিরিক্ত আইনশৃঙ্খলাবাহিনীর সদস্য মোতায়নের করা হচ্ছে। এছাড়া প্রায় সাড়ে ১১শত পালিং, পিজাডিং অফিসার দায়িত্ব পালন করবেন। নির্বাচনের সকল প্রস্তুতি শেষ হয়েছে বলে তিনি দাবী করেন।

বাকেরগঞ্জ  উপজেলাঃ এ উপজেলায় মোট ভোটার সংখ্যা ২ লাখ ১৪ হাজার। তারা কাল ৫ জন চেয়ারম্যান প্রাথী, ৪জন করে ভাইস চেয়ারম্যান প্রাথী ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থীর ভাগ্য নির্ধারণ করবেন। এ উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ থেকে নির্বাচনী মাঠে রয়েছেন শামচুল আলম চুন্নু, আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী আতিকুর রহমান, বিএনপি থেকে সিকদার মো. খলিলুর রহমান ও বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী এটিএম মশিউর রহমান, ইসলামী শ্বাসনতন্ত্র আন্দোলন থেকে মুজাম্মেল হক। বাকেরগঞ্জ উপজেলায় ভাইস চেয়ারম্যান পদে বিএনপি থেকে নাসির উদ্দিন হাওলাদার, বিদ্রোহী প্রার্থী কামরুজ্জামান নান্নু, ১৪ দল থেকে জাপা নেতা জিএম ফারুকী, ইসলামী শ্বাসনতন্ত্র আন্দোলন থেকে ইকবাল হোসেন। এছাড়া মাহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে বিএনপি থেকে মির্জা খাদিজা, আওয়ামীলীগ থেকে তহমিনা বেগম মিনু, জাপা থেকে রাজিয়া বেগম ও সতন্ত্র প্রার্থী কাহিনুর বেগম মুন্নুজান।

গৌরনদী উপজেলাঃ এ উপজেলায় ৪৫ মোট ভোটার সংখ্যা ১ লাখ ২৫ হাজার ২৮৫ জন। এখান থেকে চেয়ারম্যান পদে বিএনপি থেকে আবুল হোসেন মিয়া, বিএনপি বিদ্রোহী প্রার্থী নুর আলম হাওলাদার ও লোকমান হোসেন খান,  আওয়ামীলীগ থেকে আলহাজ্ব মোঃ শাহ আলম খান। একাই ভাবে ভাইস চেয়ারম্যান পদে বিএনপি থেকে মেহেদী হাসান শ্যামল, বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী জহির সাজ্জাদ হান্নান, আওয়ামীলীগ থেকে ফরহাদ মুন্সি ও জাপা থেকে আবু হানিফ খলিফা। মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে বিএনপি থেকে তাসলিমা বেগম, আওয়ামীলীগ থেকে সৈয়দ মনিরুন্নহার মেরি, জাপা থেকে কুলসুম বেগম।

লালমোহন উপজেলাঃ এ উপজেলার মোট ভোটার সংখ্যা ১ লাখ ৮০ হাজার ৫শ১৮ জন। লালমোহন থেকে চেয়ারম্যান প্রার্থী আওয়ামী লীগ থেকে গিয়াস উদ্দিন আহমেদ ও বিদ্রোহী প্রার্থী আনোয়ারুল ইসলাম রিপন, বিএনপি থেকে শফিকুল ইসলাম বাবুল ও বিএনপি’র বিদ্রোহী আক্তারুজ্জামান টিটব। ভাইস চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ থেকে ফকরুল আলম হাওলাদার, আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী সাহাবুদ্দিন রিপন, বিএনপি থেকে মিজানুর রহমান হাওলাদার ও হেলাল উদ্দিন ইমু।
মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের সাবিনা ইয়াসমিন, মাসুমা বেগম ও সালমা জাহান ভুলু এবং বিএনপি থেকে পারভিন দুলাল।

ফেইসবুকে আমরা

পুরনো সংখ্যা

জুলাই ২০১৭
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« জুন    
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১