September 21, 2017

নির্বাচন বর্জন করে হরতালের ডাক

--- ১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৪

barisal-upzila-election

দানিসুর রহমান লিমন ও শাহীন সুমন ॥ ভোট কারচুপি ও কেন্দ্র দখলের অভিযোগে বাকেরগঞ্জে উপজেলা নির্বাচনে বিএনপি প্রার্থীরা নির্বাচন বর্জন করেছেন। প্রতিবাদে উপজেলা বিএনপি আজ সকাল সন্ধ্যা হরতাল আহবান করেছে। বেলা ২টায় উপজেলা বিএনপি কার্যালয়ে বিভিন্ন ইলেকট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়ার সাংবাদিকদের উপস্থিতিতে এ ঘোষণা দেন চেয়ারম্যান প্রার্থী খলিলুর রহমান সিকদার। এসময় উপজেলা ভাইস-চেয়ারম্যান প্রার্থী নাছির উদ্দিন হাওলাদার, পৌর বিএনপির সভাপতি মতিউর রহমান মোল্লা, সাধারণ সম্পাদক মোফাজ্জেল হোসেন, উপজেলা ভাইস-চেয়ারম্যান হারুন-অর-রশিদ জোমাদ্দার, পৌর বিএনপির সহ-সভাপতি মোঃ শাহাদাত হোসেন, বিএনপি নেতা ফজলুর রহমান মোল্লা, যুবদল নেতা জাকির তালুকদার, ছাত্রদল নেতা বাদল মল্লিক প্রমুখ। সংবাদ সম্মেলনে প্রার্থীরা বলেন, ক্ষমতাসীন আওয়ামীলীগ সরকার ভোটারবিহীন নির্বাচন করে দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ক্ষমতায় এসেছে। বিএনপি সংসদ নির্বাচনে অংশ না নিলেও সুষ্ঠু নির্বাচন হবে ভেবে স্থানীয় সরকার নির্বাচনে অংশ নিয়েছে। কিন্তু আওয়ামীলীগ বাকশালী কায়দায় জনগনের মতামতকে উপেক্ষা করে গতকাল দিনভর জাল ভোট, কেন্দ্র দখল, বিএনপির দলীয় প্রার্থীদের এজন্টদের কেন্দ্র থেকে বের করে দেয়া, নেতা-কর্মীদের ওপর হামলা করে জোরপূর্বক নির্বাচনে জয়ী হওয়ার সকল আয়োজন সম্পন্ন করেছে।

তারা আরও বলেন, উপজেলার বিভিন্ন কেন্দ্রে মহাজোটের এমপি নাসরিন জাহান রতনা এবং মেয়র লোকমান হোসেন ডাকুয়ার প্রত্যক্ষ উপস্থিতিতে আনারস ও উড়োজাহাজ মার্কায় জাল ভোট দেয়ার বিষয়ে প্রিজাইডিং অফিসারসহ সহকারি রিটার্ণিং অফিসারের নিকট অভিযোগ দিলেও তারা কোনো ব্যবস্থা নেননি। এসব কারণে সকাল থেকেই ভোটার উপস্থিতি ছিলো কম। সংবাদ সম্মেলনে সকাল-সন্ধ্যা হরতালের ঘোষণা দেয়ার পরপর গারুড়িয়া, কলসকাঠী, ফরিদপুর, দাঁড়িয়ালসহ বিভিন্ন স্থানে বিক্ষোভ মিছিল করেছে ইউনিয়ন বিএনপির নেতা-কর্মীরা। এছাড়াও আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী চেয়ারম্যান প্রার্থী এস এম আতিকুর রহমানও ভোট কারচুপির প্রতিবাদে আলাদাভাবে নির্বাচন বর্জনের ঘোষণা দেয়।

এদিকে গৌরনদী প্রেসক্লাবে সকাল দশটায় সংবাদ সম্মেলন করেন বিএনপি সমর্থিত চেয়ারম্যান প্রার্থী আবুল হোসেন মিয়া, ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী মেহেদী হাসান শ্যামল খলিফা, মহিলা ভাইসচেয়ারম্যান প্রার্থী তাসলিমা বেগম। সকাল দশটা চল্লিশ মিনিটের সময় একইস্থানে সংবাদ সম্মেলন করেন বিএনপির বিদ্রোহী চেয়ারম্যানপ্রার্থী লোকমান হোসেন খান, নুরআলম হাওলাদার ও ভাইস চেয়ারম্যানপ্রার্থী শরীফ জহির সাজ্জাত হান্নান।

সংবাদ সম্মেলনে উভয়প্রার্থীরা অভিযোগ করেন ভোট শুরুর পর থেকে নিশ্চিত পরাজয় জেনে আ’লীগ সমর্থিত প্রার্থীদের সমর্থকেরা বিএনপি পন্থী ভোটারদের কেন্দ্রে আসতে বাঁধা সৃষ্টি করে। যারা আসে তাদের প্রকাশ্যে কেন্দ্র থেকে বের করে দেয়া হচ্ছে। এছাড়া সাধারন ভোটারদের কাছ থেকে জোরপূর্বক ব্যালট ছিনিয়ে নিয়ে আ’লীগ পন্থি প্রার্থীদের সমর্থকেরা সিল মেরে বক্সে ঢুকিয়ে দিচ্ছে। বিষয়টি স্থানীয় প্রশাসনকে অবহিত করা সত্ত্বেও তারা কোন ব্যবস্থা গ্রহন না করায় তারা নির্বাচন বর্জন করেছেন। এ ঘটনার প্রতিবাদে আগামীকাল বৃহস্পতিবার গৌরনদীতে অর্ধবেলা হরতালের ডাক দিয়েছে বিএনপি ও তার সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা।

অপরদিকে একই অভিযোগসহ জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় নেতা এ.এম রহমান পারভেজকে আটক করার প্রতিবাদে বুধবার দুপুরে দলীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে নির্বাচন বর্জনের ঘোষণা করেছেন জাপা সমর্থিত চেয়ারম্যান প্রার্থী জাকির হোসেন, ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী আবু হানিফ খলিফা ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে কুলসুম বেগম।

ফেইসবুকে আমরা

পুরনো সংখ্যা

সেপ্টেম্বর ২০১৭
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« আগষ্ট    
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০