July 22, 2017

বাবুগঞ্জ ও মুলাদীতে আওয়ামী লীগ বিজয়ী ॥ হিজলায় বিএনপি প্রার্থী এগিয়ে

--- ১৬ মার্চ, ২০১৪

upzilla-election_barisal

বরিশালের বাবুগঞ্জ ও মুলাদীতে আওয়ামীলীগ সমর্থিত প্রার্থীরা বেসরকারীভাবে বিজয়ী হয়েছেন। হিজলা উপজেলার বিএনপি সমর্থিত প্রার্থীরা এগিয়ে রয়েছেন।
বাবুগঞ্জে বিজয়ী চেয়ারম্যান প্রার্থী আওয়ামীলী সমর্থিত সরদার খালেদ হোসেন স্বপন (কাপ-পিরিচ) ৩৬ হাজার ৬৫১ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপি সমর্থিত সুলতান আহমেদ খান (আনারস) পেয়েছেন ৯ হাজার ৮১৯ ভোট। এ উপজেলায় ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন জামায়াতে ইসলামীর আজিজুর রহমান অলিদ ও আওয়ামীলীগের রিফাত জাহান তাপসী।

মুলাদীতে বিজয়ী আওয়ামীলীগ সমর্থিত চেয়ারম্যান প্রার্থী তরিকুল হাসান মিঠু (আনারস) পেয়েছেন ৭৫ হাজার ৯৯১ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি বিএনপি সমর্থিত বর্তমান চেয়ারম্যান আঃ ছাত্তার খান (কাপ-পিরিচ) ৫ হাজার ৭০৮ ভোট। যদিও এ উপজেলায় বিএনপি সহ অন্য সকল প্রার্থীরা ভোটগ্রহনের দিন (শনিবার) সকাল ১০টায় ভোট বর্জন করেন। এ উপজেলায় বিজয়ী ভাইচ চেয়ারম্যানরা হলেন আওয়ামীলীগের কাজী মাইনুল আহসান সবুজ ও শামীমা নাসরিন।

হিজলা উপজেলায় ৩০টি কেন্দ্রের মধ্যে ৩টি কেন্দের ভোট স্থগিত থাকায় ২৭টি কেন্দ্রের ফল ঘোষণা করা হয়েছে। এতে ৮ হাজার ২১৭ ভোট পেয়ে এগিয়ে আছেন বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী দেওয়ান মোঃ শহীদুল¬াহ (চিংড়িমাছ)। তার নিটকতম প্রতিদ্বন্দ্বিতরা হলেন যথাক্রমে বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী গাফফার তালুকদার (ঘোড়া) ৮ হাজার ১২১ ভোট, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের সৈয়দ মোজাম্মেল হক (মোটরসাইকেল)৭ হাজার ২৭২ ভোট, আওয়ামীলীগ সমর্থিত বর্তমান চেয়ারম্যান সুলতান মাহমুদ টিপু সিকদার (হেলিকপ্টার) ৭ হাজার ১১৬ ভোট, জামায়াতে ইসলামীর মাওলানা আবুল হাশেম (ব্যাটারী) ৬ হাজার ৮৫৫ ভোট।

জেলা সিনিয়র রিটার্নিং কর্মকর্তা দুলাল তালুকদার জানিয়েছেন, হিজলার গুয়াবাড়িয়া ইউনিয়নের সংহতি পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয়, দক্ষিণ গজালিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও হিজলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে কারচুপির অভিযোগ ওঠায় ভোটগ্রহণ স্থগিত করা হয়েছে। ঐ কেন্দ্রে মোট ভোটার সংখ্যা ৯ হাজার ২১জন।

ফেইসবুকে আমরা

পুরনো সংখ্যা

জুলাই ২০১৭
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« জুন    
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১