September 21, 2017

উপজেলা নির্বাচনে ভোট বর্জন ॥ উজিরপুরে সংঘর্ষ

--- ২৩ মার্চ, ২০১৪

barisal---pic-23-03--02

জেলার ৩টি উপজেলায় পূর্বের ন্যায় জাল ভোট ও কেন্দ্র দখলের মধ্য দিয়ে রবিবার সম্পন্ন হয়েছে। উজিরপুরে ভোট কেন্দ্র দখলে বাধা দেয়ায় আওয়ামী লীগ কর্মীদের সাথে বিএনপি’র সংঘর্ষ হয়েছে।
আগৈলঝাড়া উপজেলায় নির্বাচন শুরুর পূর্বেই আওয়ামী লীগ সমর্থিত চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থীদের সমর্থকরা প্রশাসনের সহায়তায় ভোট গ্রহণ সম্পন্ন করে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ব্যাপক জাল ভোট দেয়ার অভিযোগে ঐ উপজেলার ৪ জন চেয়ারম্যান প্রার্থী ও দু’ জন ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী ভোট বর্জন করেছেন।

আগৈলঝাড়া প্রেসক্লাবে ১৯দলীয় সমর্থীত প্রার্থী এসএম আফজাল হোসেন, আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী যতীন্দ্র নাথ মিস্ত্রি, গিয়াস খান, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের রফিকুন্নবী ভাট্টি, বিএনপি সমর্থিত ভাইস চেয়ারম্যান আবুল মোল্লা, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের জাহাঙ্গীর বেপারী পৃথক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে ভোট বর্জন করে ৩৮টি কেন্দ্রে পুনঃরায় ভোট গ্রহনের দাবি জানিয়েছেন। উত্তর জেলা বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক আকন কুদ্দুসুর রহমান জানান, ভোটের আগের রাতেই ৩০টি কেন্দ্রে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী গোলাম মর্তুজা উপজেলা প্রশাসনের সহায়তায় কাগজে-কলমে ভোট গ্রহণ সম্পন্ন দেখিয়েছে। ঐ সব কেন্দ্রে বিএনপি’র এজেন্টদের প্রবেশ করতে দেয়া হয়নি। ভোট কারচুপির অভিযোগে আজ সোমবার উপজেলা সদরে অর্ধবেলা হরতাল আহবান করা হয়েছে।

বানারীপাড়া উপজেলায় বিএনপি সমর্থিত চেয়ারম্যান, পুরুষ ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থীরা গতকাল রবিবার দুপুরে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থীদের সমর্থকদের বিরুদ্ধে ভোট কেন্দ্র দখল করে জাল ভোট দেয়ার অভিযোগে নির্বাচন বর্জন করেছেন। সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে বিএনপি সমর্থিত চেয়ারম্যান প্রার্থী মোঃ শাহআলম মিঞা, ভাইস চেয়ারম্যন প্রার্থী হাবিবুর রহমান জুয়েল ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী তাসমিয়া সিদ্দিকা ভোট বর্জনের ঘোষণা দিয়ে উপজেলার ৮টি ইউনিয়নের ৩৮টি ভোট কেন্দ্রে পুনরায় ভোটগ্রহনের দাবি করেন। আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান গোলাম ফারুক অভিযোগ অস্বীকার করে জানান, পরাজয় নিশ্চিত হয়ে প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থী ভিত্তিহীন অভিযোগ করেছে।

বানারীপাড়া ও আগৈলঝাড়ায় তেমন কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটলেও উজিরপুরের সাতলায় ও বরাকোঠা ভোট কেন্দ্র দখলকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগ ও বিএনপি’র মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। সাতলা ইউনিয়নের রাজাপুর ভোট কেন্দ্রে সংঘটিত সংঘর্ষে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক ইদ্রিস সরদার গুরুতর আহত হয়েছেন। বরাকোঠা ভোট কেন্দ্রে দু’প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ শুরু হলে সেখানে সেনাবাহিনী হাজির হয়। সেনাবাহিনী ঘটনাস্থলে পৌছামাত্র সংঘর্ষে জড়িতরা পালিয়ে যায়।

ফেইসবুকে আমরা

পুরনো সংখ্যা

সেপ্টেম্বর ২০১৭
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« আগষ্ট    
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০