July 22, 2017

ভান্ডারিয়ায় বিপুল টাকা সহ প্রার্থীর ভাই আটক

--- ২৩ মার্চ, ২০১৪

upzilla-election_barisal

ভান্ডারিয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের মনোনয়ন দাখিলের পর থেকেই বিপুল টাকা খরচ করে আসছিলেন পরাজিত চেয়ারম্যান প্রার্থী ও বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান মাহিবুল হোসেন মাহিমের বড় দু’ ভাই। নির্বাচনের মাঠে কালো টাকার দৌড়ত্ব ঠেকাতে র‌্যাব সহ আইন – শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ভিটাবাড়িয়ার এক আওয়ামী লীগ নেতার বাড়িতে দু’ দিন আগে অভিযান চালায়। ঐ আওয়ামী লীগ নেতা টাকা সহ এলাকা ছেড়ে ঢাকায় আশ্রয় গ্রহন করেন।

বিভিন্ন ইউনিয়নে ভোটারদের প্রভাবিত করার লক্ষ্যে টাকা প্রদান করা হলেও ঐ ইউনিয়নে কোন দায়িত্ব প্রাপ্ত লোক না থাকায় গতকাল ভোট গ্রহন চলাকালে চেয়ারম্যান প্রার্থী মাহিমের বড় ভাই ঢাকার বিশিষ্ট ব্যবসায়ী নিজাম হোসেন নিজে টাকা নিয়ে ঐ ইউনিয়নের বিভিন্ন ভোট কেন্দ্রে গিয়ে টাকা প্রদান করতে থাকেন। এক পর্যায়ে নিজাম অত্যাধুনিক বিলাস বহুল একটি জীপ গাড়ীযোগে ৮ নং ভিটাবাড়িয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে হাজির হন। সেখানে ভোটারদের টাকা দিয়ে প্রভাবিত করার সময় স্থানীয় জনগন টাকা সহ ভোট কেন্দ্রের ভিতরেই নিজামের জীপ গাড়ি ঘেরাও করে চরাও হয়। দীর্ঘক্ষন ঐ কেন্দ্রে জনতা অবরুদ্ধ করে রাখে নিজামকে।

ঐ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মশিউর রহমান সেখানে হাজির হয়ে জনরোষ থেকে নিজামকে রক্ষার চেষ্টা করে ব্যর্থ হন। পরে খবর পেয়ে র‌্যাব সেখানে  গিয়ে নিজাম ও তার ভাই প্রার্থী মাহিবুল হোসেন মাহিমকে উদ্ধার করে ইউএনও অফিসে নিয়ে আসেন। বেলা ৪ টার দিকে আপোষ নিস্পত্তির মাধ্যমে মুক্ত হন নিজাম। প্রশাসনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে মুচলেকায় স্বাক্ষর দিয়ে নিজাম মুক্ত হয়েছেন।
ভিটাবাড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মশিউর রহমান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান- সাধারন ভোটাররা নিজাম সাহেবকে টাকা সহ আটক করেছে এমন খবর পেয়ে আমি কেন্দ্রে গিয়ে জনতাকে শান্ত করার চেষ্টা করেছি। পরে র‌্যাব এসে আমাদের স্বাক্ষ্য রেখে নিজাম সাহেবকে নিয়ে গেছেন। পরে কি হয়েছে তা জানা নেই। তবে নির্বাচন উপলক্ষ্যে নিজাম ও তার অপর ভাই মাহমুদ বিপুল টাকা খরচ করে ভোট কেনার অপচেষ্টা চালিয়েছেন বলে মশিউর সহ কয়েকটি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জানান।

ফেইসবুকে আমরা

পুরনো সংখ্যা

জুলাই ২০১৭
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« জুন    
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১