July 25, 2017

ঈদে বরিশালের গ্রামের বাড়ি আসছেন না মোশাররফ করিম

--- ২২ জুন, ২০১৭

452900721c485420830f9b02a49903a0-57440b0c514f2

আরিফুর রহমান, ষ্টাফ রিপোর্টার।।

গৌরনদী উপজেলার প্রত্যন্ত পল্লীর সেরা দুষ্ট শামিম খলিফাই হচ্ছেন দেশের খ্যাতিমান নাট্টকার মোশাররফ করিম। ছোট বেলা থেকেই চঞ্চল ও দূরান্তপনা পাশাপাশি এ গ্রাম থেকে ও গ্রামে বন্ধুদের নিয়ে ছুটে চলাই ছিল তার কাজ । গ্রামে থাকাকালীন অধিকাংশ সময়ই নদীর তীরে আড্ডা দিয়ে কাটিয়েছেন। আসন্ন ঈদকে সামনে রেখে তারকা মোশারফ করিমের গ্রামের বাড়ি ও বন্ধুদের হতাশার কথা ভক্তদের উদ্দেশ্যে তুলে ধরা হয়েছে এ প্রতিবেদন।
গৌরনদী উপজেলা সদর থেকে ৬ কিলোমিটার প্রত্যন্ত পল্লী ঐতিহ্যবাহী নলচিড়া ইউনিয়নের বোরাদী গরঙ্গল গ্রামে তার জন্ম। ১৯৮০ সালে পিঙ্গলাকাঠী চিপারটাইপ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষায় পাশ করে পিঙ্গলাকাঠী মাধ্যমিক
বিদ্যালয়ে ৬ষ্ঠ শ্রেনিতে ভর্তি হন। ১৯৮৬ সালে প্রথম বিভাগে এস,এস,সি পাশ করেন। গ্রামের বন্ধুবান্ধব, সহপাঠী  শিক্ষক ও পারিবারিক সদস্যদের দেয়া তথ্য মতে ছোট বেলা থেকেই মোশারফ করিম অত্যন্ত দুষ্ট প্রকৃতির ও মেধাবী ছাত্র ছিলেন। সব সময় দূরান্তপনা ও আড্ডা দিতেই বেশী পছন্দ করতেন।
সোমবার সকালে নলচিড়া ইউনিয়নের বোরাদী গরঙ্গল গ্রামে রওয়ানা হলে পিঙ্গলাকাঠী হাইস্কুলের পূর্ব পাশ পর্যন্ত যাওয়ার পরে তারকা মোশাররফ করিমের বাড়ি যেতে প্রায় আধা কিলোমিটার পথ বাড়ি দিতে হয়। বাড়ি পর্যন্ত যেতে ওই আধা কিলোমিটার পথে কোন রাস্তা নেই। অন্যের বাড়ির উপর দিয়ে হাঁটু কর্দমাক্ত পথ পাড়ি দিয়ে বাড়িতে পৌছতেই ঘরের কোনে একটি সিঙ্গেল বাঁশের সাঁকো পাড় হতে হয়। বাড়িতে পৌছতেই দেখা যায় পুরানো একটি দোতলা টিনের ঘর। বাড়িতে জনমানব শুন্য। দেখলেই বোঝা যায় এ বাড়িতে কেউ  থাকেন না। হয়তো বছরের মাঝে মধ্যে দু এক দিন কোন মেহমান রাত যাপন করে থাকেন।
মোশাররফ করিমের বাড়ির পাশের জুলহাস(৪০) জানান, এ বাড়িতে কেহ থাকেন না। প্রতি বছর ঈদে শামীম খলিফা (মোশাররফ করিম) বাড়িতে এসে ১/২দিন থাকেন এবং জমিয়ে বন্ধুদের নিয়ে আড্ডা দিয়ে আনন্দ ফূর্তি করে সময় কাটিয়ে ঢাকায় চলে যান। করিমের প্রতিবেশী ভাবি ফিরোজা বেগম(৬০) বলেন, ও(করিম) প্রতিবছর ঈদ উপলক্ষে বাড়িতে আসত এবং হৈ হুল্লোর করে বন্ধুদের নিয়ে সময় কাটান। গ্রাম ঘুরে দেখেন, এ বাড়ি থেকে ও বাড়িতে ছুটে সবার খোঁজ খবর নেন। পুরো গ্রামটি মাতিয়ে রাখেন। তিনি আরো বলেন, শামীম খলিফার সবচেয়ে পছন্দ হচ্ছে আড়িয়াল খাঁর শাখা নদী পালরদী নদীর তীরে আড্ডা দেওয়া ও নদীতে গোসল করা। বাড়িতে এসেই প্রথমইে ছুটে যান শৈশবের স্মৃতি বিজড়িত নদীর তীরে। গ্রামের লোকজন জানান, শামীম বাড়িতে আসলে যে কয় দিন থাকেন প্রতিদিন শত শত ভক্ত, বন্ধুবান্ধব হিতাকাঙ্খী বাড়িতে ভীড় জমায় কিন্তু শামীম সকলের সঙ্গে সৎ আচরন করে তাদের সঙ্গে আনন্দ ভাগ করে নেন। ধনী গরীব সকলের সঙ্গে সমহারে কোলে টেনে নেন। বিন্দুমাত্র হিংসা বিদ্বেষ নেই।
মোশাররফ করিমের কাছের বন্ধু মাদ্রাসা নজরুল ইসলাম হাওলাদার ও পল্লী চিকিৎসক হাবিবুর রহমান জানান, তাদের মনটা খুবই খারাপ। কারন এবারে মোশাররফ বাড়িতে ঈদ করতে আসবেন না। তারা ইতিমধ্যেই জেনেছেন মোশাররফ পরিবার পরিজন নিয়ে ঈদে মালয়শিয়া থাকবেন। তারা বলেন, এবারে ঈদে মোগো ইচ্ছা ছিল নৌকা লইয়া বৃষ্টির মধ্যে নদীতে ঘুরে বেড়ানো। তা আর হল না। ঈদে শামীম বাড়িতে না আসার খবরে গ্রাম জুড়ে হতাশ। পিঙ্গলাকাঠি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক(অবঃ) মো. বজলুর রহমান বলেন, শামীম খলিফা ছোট বেলা থেকেই দুষ্ট প্রকৃতির হলেও সে ছিল খুবই মেধাবী, মানব দরদী। আজও সেই ধারা সে ধরে রেখেছেন।
করিমের বাড়ির অদূরেই বড় বোন হেলেনুর রহমান নিজ বাড়িতে বাস করেন। ওই বাড়িতে গেলে হেলেনুর রহমান জানান, তারা ৫ ভাই ৫ বোনের মধ্যে শামীম খলিফা (মোশাররফ করিম) ৪র্থ। তার বাবা করিম খলিফা ছিলেন একজন পল্লী চিকিৎসক এবং মমতাজ বেগম ছিলেন একজন গৃহিনী। তিনি বলেন, শামীম ছিলেন গ্রামের সেরা দুষ্ট, তার পছন্দের একটি দিক ছিল বন্ধুদের নিয়ে স্কুল মাঠে আড্ডা দেওয়া । নদীর তীরে ছুটে চলা। করিমের কাছের বন্ধুরা অনেকেই ঢাকায় বসবাস করেন। সহপাঠি নয় শৈশবের দুষ্ট বন্ধু আনোয়ার  আকন। আনোয়ার বলেন, শামীম খলিফা(মোশাররফ করিম) মোর একজন ভাল বন্ধু, ওরে নিয়ে মুই খুব গর্ব করি। মোর শামীমরে যহন টিভিতে দেহি তহন বুকটা ভইররা যায়।
এলাকাবাসী জানান, মোশাররফ করিম দেশের গর্ব । তার বাড়িতে যাওয়ার কোন রাস্তা বা পথ নেই। সে বাড়িতে আসলে হাজার হাজার ভক্তবৃন্দ বাড়িতে ভিড় জমায়। বাড়িতে যাতায়াতের জন্য রাস্তা নির্মান করার জন্য সরকারের কাছে জোর দাবি জানান।
এবারে বাড়িতে ঈদ করতে আসতে না পারায় দুঃখ প্রকাশ করে মোশাররফ করিম বলেন, গ্রামের সকল আত্মীয়স্বজন, বন্ধু-বান্ধব ও ভক্তদের প্রতি ঈদের অনেক অনেক শুভেচ্ছা। ঈদ সকলের জন্য কল্যান বয়ে আনুক।

ফেইসবুকে আমরা

পুরনো সংখ্যা

জুলাই ২০১৭
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« জুন    
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১