July 25, 2017

বরিশাল লঞ্চঘাটে পুলিশের বেপরোয়া চাঁদাবাজী

--- ২৪ জুন, ২০১৭

বরিশাল অফিস: ঈদকে কেন্দ্র করে নাড়ির টানে বাড়ি ফিরতে শুরু করেছে দক্ষিনাঞ্চলের লক্ষ মানুষ। গতকাল থেকে লঞ্চের বিশেষ সার্ভিস শুরু হওয়ায় ২৪ ঘন্টাই লঞ্চঘাটে থাকে অতিরিক্ত যাত্রীদের চাপ। আর অতিরিক্ত যাত্রীদের চাপকে পুজী করে পুলিশের অসাধু সদস্যরা নেমেছে চাঁদা আদায়ের মিশনে। যার কারনে ভোগান্তিতে পড়ছে হাজার হাজার যাত্রী। সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, লঞ্চঘাটে আসা যাত্রীদের গাড়িতে তুলতে হলে গাড়ি প্রতি দায়ীত্বরত পুলিশ সদস্যদের ৫০ টাকা করে দিতে হয়। ৫০ টাকা না দিলে গাড়িতে যাত্রী তুলতে দিচ্ছেনা পুলিশ। আবার সাংবাদিকরা টাকা নেয়ার ছবি তুলতে গেলে তাদেরকেও দেয়া হয় টাকা। কথা হয় আব্দুল জব্বার নামের এক ড্রাভাবের সাথে হাতে ক্যামেরা দেখে তিনি বলেন ভাই আপনাদের কাছে বলে লাভ কি? আপনারাওতো টাকা খেয়ে চুপ থাকেন। অপর এক ড্রাইভার জানান, ৫০ টাকা না দিলে গাড়িতে যাত্রী তুলতে দেয়না পুলিশ। প্রতি রাতে পুলিশের লক্ষাধীক টাকা ইনকাপ হয় বলেও জানান তিনি। রুমা নামের এক যাত্রী সাংবাদিকদের জানান, পুলিশকে পঞ্চাশ টাকা করে দেয়ার ফলে প্রতি বছরই আমাদের কাছ থেকে দ্বিগুণ টাকা বাড়িয়ে নেয় গাড়ির ড্রাইভাররা। তিনি বলেন এ ঘটনা নতুন নয় এটা প্রতি বছরই ঘটে। বাস্তব ঘটনা, এই প্রতিবেদক কৌশলে একটি অটো নিয়ে যাত্রী তোলার চেষ্টা করলে পুলিশ এসে হাত বাড়ায়। বিষয়টি কি জানতে চাইলে তিনি কিছু একটা বুজতে পেরে কৌশলে বলেন তুমি না আমি অন্য গাড়ি মনে করেছি। তবে তার নেইম প্লেট ছিলোনা। উল্লেখ্য লঞ্চঘাট এলাকায় দায়ীত্বরত অধিকাংশ পুলিশেরই নেইম প্লেট থাকেনা।

ফেইসবুকে আমরা

পুরনো সংখ্যা

জুলাই ২০১৭
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« জুন    
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১